বাংলাদেশে ব্লেন্ডিং সেন্টার স্থাপন করবে সিগওয়ার্ক

3
ঢাকায় নিজেদের ব্লেন্ডিং সেন্টার স্থাপন করতে যাচ্ছে প্যাকেজিং ও লেবেল শিল্পে প্রিন্টিং ইঙ্ক তৈরিতে বিশ্বের নেতৃত্বস্থানীয় প্রতিষ্ঠান সিগওয়ার্ক। এ বছরের চতুর্থ প্রান্তিক নাগাদ সেন্টারটি পূর্ণোদ্যমে উৎপাদনে যাবে বলে আশা করছে তারা। বাংলাদেশে নতুন এই কারখানাটি স্থাপনের মধ্য দিয়ে স্থানীয় বাজারে নিজেদের শক্ত অবস্থান তৈরির পাশাপাশি সমগ্র এশিয়ার বাজারেই নিজেদের অবস্থান পাকাপোক্ত করতে চায় সিগওয়ার্ক।
বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) রাজধানীতে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানায় প্রতিষ্ঠানটি।
নব্বই দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে বাংলাদেশের প্রিন্টিং শিল্পকে প্রয়োজনীয় রসদ সরবরাহ করে চলেছে উল্লেখ করে সিগওয়ার্ক বাংলাদেশ লিমিটেডের পরিচালক আশীষ প্রধান বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে বাংলাদেশে ক্রমবর্ধমানভাবে গ্রাহক তৈরিতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের চলমান ব্যবসায়িক মডেল অনুযায়ী, চাহিদামাফিক প্রিন্টিং ইঙ্ক আমরা আমাদের ভারতের কারখানা থেকে বাংলাদেশে আমদানি করে থাকি। নতুন এই সেন্টারটি স্থাপিত হলে বাংলাদেশেই সলভেন্ট ও ওয়াটারবেজড ইঙ্ক, ইউভি এবং কনভেনশনাল অফসেট ইঙ্ক- এর ব্লেন্ডিং করবার কাজটি সম্পন্ন করা যাবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমান ব্যবস্থায় স্থানীয় ক্রেতাদের আলাদা ধরনের চাহিদাগুলো পূরণে ও দ্রুততর সমাধান দিতে আমাদের কিছু সীমাবদ্ধতা রয়ে গেছে তাই এই সমস্যা নিরসন করতে দেশেই নতুন একটি ব্লেন্ডিং সেন্টার স্থাপন করা হচ্ছে। এর ফলে দেশের ক্রেতাদের দেশের মাটিতে বসেই দ্রুততম সময়ে বিশ্বমানের কারিগরি সহায়তা দিতে সক্ষম হবে সিগওয়ার্ক।’
পণ্য নিরাপত্তা বিশ্বে শীর্ষস্থাস্থানীয় এ প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশে স্থাপিত নতুন এ ব্লেন্ডিং সেন্টারটিকে যেকোন মূল্যে ক্ষতিকর টলুয়েন মুক্ত পরিবেশ বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর। এ সেন্টারে উৎপাদিত ইঙ্ক গ্লোবাল মানদণ্ড অনুযায়ী শতভাগ কমপ্লায়েন্ট হবে এবং বায়ার ব্র্যান্ডসমূহের নিজস্ব মানদণ্ড অনুসরণ করার সুবিধা থাকবে এ ব্লেন্ডিং সেন্টারে।
গ্লোবাল প্রোডাকশন ও সার্ভিস নেটওয়ার্কের আওতায় কাঁচামাল ও ইন্টারমিডিয়ারি প্রোডাক্টের অভিন্নতা রক্ষা করে সিগওয়ার্ক বিশ্বের ১৫টি স্থানে সেন্টার অব এক্সেলেন্সে বেসিক কালার ও বার্নিশসমূহ উৎপাদন করে থাকে এবং বিশ্বের ৩০টি স্থানে স্থাপিত ব্লেন্ডিং সেন্টারের মাধ্যমে ক্রেতাদের আকাক্সিক্ষত সময়ের মাঝে চাহিদামাফিক শেডের প্রিন্টিং ইঙ্ক সরবরাহ করে সিগওয়ার্ক।
আরো পড়ুন