সাতক্ষীরায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায় স্কুলছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে সাদ্দাম হোসেন (২৪) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।
শনিবার (২৭ এপ্রিল) রাতে উপজেলার জালালাবাদ গ্রামের ওই ছাত্রী বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ওই স্কুলছাত্রীকে একই গ্রামের মফিজুল ইসলামের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (২৪) দীর্ঘদিন যাবৎ স্কুলে যাওয়া-আসার সময় কু-প্রস্তাবসহ বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতেন। গত ১৩ এপ্রিল বিকাল ৫টার দিকে মেয়েটি পার্শ্ববর্তী সহিদুল ইসলামের ছেলে রুহুল কুদ্দুসের বাড়ি টেলিভিশন দেখাকালিন ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়। এ সময় রুহুল কুদ্দুসের স্ত্রী রান্না ঘরে থাকার সুযোগে সাদ্দাম হোসেন ওই বাড়িতে প্রবেশ করে তাকে জোরপূর্বক মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। পরে লোক লজ্জার ভয়ে সে নীরবে বাড়ি হতে চলে যায়।
এরপর মেয়েটি সাদ্দামকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিলে সাদ্দাম প্রত্যাখান করায় গত ২৫ এপ্রিল বিষয়টি মাকে জানায় মেয়েটি। পরে তার পিতা-মাতা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের শরণাপন্ন হয়।
গ্রাম্য শালিসে সমাধান করতে না পারায় শনিবার রাতে কলারোয়া থানায় সাদ্দাম হোসেনকে আসামি করে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (১) ধারায় একটি মামলা দায়ের করে মেয়েটি। যার নং-২২ (৪)১৯।
এ বিষয়ে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান বলেন, ধর্ষক পলাতক রয়েছে। মেয়েটি বর্তমান পুলিশ হেফাজাতে রয়েছে। রোববার সকালে সাতক্ষীরা আদালতে জবানবন্দি গ্রহণ শেষে অনুমতি নিয়ে তাকে মেডিকেল পরীক্ষা করানো হবে।
Share.

Leave A Reply