রাজশাহীতে ঘুষ না পেয়ে পা ভেঙে দিল পুলিশ

0
রাজশাহীর দুর্গাপুরের এক দিনমজুরের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করে তা না পেয়ে তার পা ভেঙে দিয়েছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী সাইদুল ইসলামকে ধরে নিয়ে নির্যাতন করার এ অভিযোগ উঠেছে দুর্গাপুর থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) হাফিজের বিরুদ্ধে।
হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় সাইদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, তার পুত্রবধূ ছেলের বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করলে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার ছেলে আসাদুল ইসলামকে আটক করেন এএসআই হাফিজ। তবে থানায় না নিয়ে আসাদুলকে হোজা অনন্তকান্দি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নিয়ে যান হাফিজ। খবর পেয়ে ছেলেকে আনতে ছাড়াতে সেখানে গেলে সাইদুল ইসলামের কাছে ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন এএসআই হাফিজ। ঘুষের টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে গালিগালাজ করেন এ পুলিশ কর্মকর্তা। এক পর্যায়ে ক্ষুদ্ধ হয়ে বাঁশের লাঠি দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে সাইদুলের বাম পা ভেঙে দেয় হাফিজ। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। তবে ঘটনার দিন গভীর রাতে আসাদুলকে ছেড়ে দেন পুলিশ কর্মকর্তা হাফিজ।
দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আসফাক হোসেন বলেন, সাইদুল ইসলামের হাটুতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে হাড় ভেঙে গেছে। তবে এক্সেরে করার পর ভাঙার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক্সেরে মেশিন না থাকায় বাহির থেকে করার জন্য বলা হয়েছে।
আসাদুল নামের কাউকে আটক করে ঘুষ দাবি করে তার পিতাকে মারধর করার বিষয়টি অস্বীকার করেন পুলিশের সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) হাফিজ। দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মোতালেব বলেন, বিষয়টি জানা নেই। এ বিষয়ে কেউ অভিযোগও করেননি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করা হবে।
Share.

About Author

Leave A Reply