সাভারে চাচাতো ভাইয়ের ধর্ষণের শিকার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +
সাভারে চাচাতো ভাইয়ের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে সপ্তম শ্রেনী পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রী। এ ঘটনায় অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে দুই জনকে আটক করেছেপুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে সাভার পৌর এলাকার গেন্ডা খালাশীপাড়া এলাকা থেকে তাদেরকেগ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছেবলে থানা সূত্রে জানা গেছে।
আটককৃতরা হলো, সাভারের গেন্ডা খালাশীপাড়া এলাকার ধর্ষক রাব্বির পিতা ব্যবসায়ী লেহাজ উদ্দিনএবং একই এলাকার মো. সেলিমের ছেলে শাহরিয়ার জিম। তবে এ ঘটনার মূল হোতা ধর্ষিতার চাচাতোভাই ধর্ষক রাব্বীকে এখনও আটক করতে পারেনি পুলিশ।
পুলিশ জানায়, সোমবার বিকেলে ভুক্তভোগী স্কুল ছাত্রী বাড়ীর পাশে বসেছিলো। এ সময় প্রতিবেশীচাচাতো ভাই রাব্বী মিয়া জরুরী কথা বলার জন্য বন্ধু শাহরিয়ার জিমের বাসায় ডেকে নিয়ে যায়।সেখানে শাহরিয়ার জিমের সহযোগীতায় তার ঘরের ভিতরে স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।এঘটনায় ওই ছাত্রী চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন সহযোগী শাহরিয়ার জিমকে আটক করলেওধর্ষক রাব্বী কৌশলে পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মাহবুবুল হক রনি বলেন, স্কুল ছাত্রীকেধর্ষণের অভিযোগ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এসময় ধর্ষণের সহায়তাকারী শাহরিয়ারজিমকে আটক করা হয়। তবে প্রধান অভিযুক্ত ধর্ষক রাব্বীকে না পেয়ে তার বাবা লেহাজ উদ্দিনকেজিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে ধর্ষক রাব্বী (২০) ও সহযোগীশাহরিয়ার জিমকে (২২) আসামী করে মামলার এজাহার লেখা হয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে উর্ধ্বতনকর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।
Share.

Leave A Reply