সোনাগাজীতে তত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টার বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার ৮   দু’জনের স্বীকারোক্তি

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +
তত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক কৃষি উপদেষ্টা ড. সিএস করিমের ফেনীর সোনাগাজীর গ্রামের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে মোট ৮জনকে গ্রেফতার করেছে। নূরনবী হান্নান ও নূর উদ্দিন শামীম নামে দু’ডাকাত পৃথকভাবে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে।
ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসাইনের আদালতে ঘটনার সাথে নিজেদেরকে জড়িয়ে আরো ২৫-৩০ জন জড়িত আছে বলে এই স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেয় তারা। তাদের জবানবন্দিতে উঠে আসে আন্ত:জেলা ডাকাত সর্দার গুণধনীর ছেলে ইকবাল হোসেন সহ অপরাপর ডাকাতদের নাম। ইকবাল ৩৭টি ডাকাতি মামলার পলাতক আসামি।
মীর হোসেন রাকিব নামে একজ থেকে ডাকাতি হওয়া মোবাইল উদ্ধার করেছে। অপরাপর গ্রেফতাকৃতরা হচ্ছে, একরামুল হক তোতা, এনায়েত উল্যাহ রনি, জাহিদুল ইসলাম রিপন, নূরনবী মামুন ওরফে গাধা মামুন এবং ভৈরব চৌধুরী বাজারের নৈশ প্রহরী মো. হানিফ।
পুলিশ জানায়, ২৫জুলাই রাত দুইটার দিকে সোনাগাজী সদর ইউনিয়নের পূর্ব ছাড়াইত কান্দি গ্রামের বজলের ছোবহান চৌধুরী বাড়ির তত্ত্বাবধারক সরকারের সাবেক কৃষি উপদেষ্টা ড. সিএস করিমের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ঘরের দরজা ভেঙ্গে ২৫-৩০জনের সশস্ত্র মুখোশধারী ডাকাত দল  ঘরে ঢুকে।
এসময় আলমারি ভেঙ্গে নগদ তিন লাখ টাকা, ১০ভরি স্বর্ন ও ৫টি মোবাইল ফোন লুটে নেয়। এসময় ঘরের লোকজন চিৎকার দিলে ড. সিএস করিমের ভাতিজা নূর মোহাম্মদ আজাদ, তার ছোট ভাই নূর হাসনাত আজাদ কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। একই সময় ড. সিএস করিমের অপর চাচাতো ভাই আবুধাবি প্রবাসী ইফতেখার হোসেন চৌধুরীর ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে তার ছেলে স্কুল ছাত্র ইসতেহার হোসেন চৌধুরী কে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। এসময় তাদের ঘরের আলমারি ভেঙ্গে নগদ ৭হাজার টাকা, ৬ভরি স্বর্ন ও একটি মোবাইল ফোন লুটে নেয়।
এ ব্যপারে আহত নূর মোহাম্মদ আজাদ বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
সোনাগাজী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মুহাম্মদ  খালেদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
Share.

Leave A Reply