বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১ .
  • ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বাসের চাপায় ইজিবাইকের ৭ যাত্রী নিহত

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি।।

পঞ্চগড়-তেঁতুলিয়া মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাসচাপায় ইজিবাইকের ৭জন নিহত হয়েছে।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে পঞ্চগড় সদর উপজেলার সাতমেড়া ইউনিয়নের মাগুরমারী চৌরাস্তা আমতলী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান মাঝিপাড়া এলাকার নবদম্পতি লাবু ইসলাম (২৯) ও মুক্তি বেগম (১৯) পঞ্চগড় সদর উপজেলার সুরিভিটা এলাকার আকবর আলী (৭০) ও তার স্ত্রী নুরিমা বেগম (৫৫), একই উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের চেকরমারি এলাকার ইজিবাইক চালক রফিক (২৮), সাতমেরা ইউনিয়নের রায়পাড়া এলাকার ফরহাদ হোসেন মাকুদ (৪৫) এবং সাহেবজোত এলাকার আকবর আলীর স্ত্রী নার্গিস আক্তার (৪২)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঘাতক বাসটি যাত্রী নিয়ে পঞ্চগড় থেকে তেঁতুলিয়ার দিকে যাচ্ছিলো। এসময় মাগুরমারী চৌরাস্তা আমতলী এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইককে চাপা দেয় বাসটি। এতে ঘটনাস্থলে ৫ জন ও হাসপাতালে নেওয়ার পর দু’জনের মৃত্যু হয়।

ঘটনার পর পরেই বিক্ষুব্ধ জনতা প্রায় কয়েক ঘন্টা মহাসড়ক অবরুদ্ধ করে রাখে। এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ জনতা পুলিশ ও স্থানীয় এক সাংবাদিকের উপর হামলা চালায়। এসময় বিক্ষুব্ধ লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও সাংবাদিকদের ওপর হামলা করে। এতে তেঁতুলিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উপ পরিদর্শক (এসআই) রাজিবুল, কনস্টেবল রিপন, সফিউল ও বাংলা টিভির জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক ডিজার হোসেন বাদশা আহত হয়েছেন। পরে পুলিশের সাথে ধাওয়া পালটা ধাওয়া শুরু হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন ও পুলিশ সুপার ইউসুফ আলী।

ঘটনার পর পরেই জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াছমিনের নেত্বৃত্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শাহিনা শবনমকে প্রধান করে একটি তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

Share.

Leave A Reply