কেন ‘চেতনায় অম্লান’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানালেন এসপি আবিদ

3

অনলাইন ডেক্স।।

কুমিল্লা থেকে ময়মনসিংহ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা ও বিরল ভালবাসার অনন্য দৃষ্টান্তদৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্য। বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে সাড়া দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ গড়া শহীদ পুলিশ সদস্যদের স্মৃতির প্রতি ভালোবাসার অর্ঘ্য নিবেদন করেই সেখানে দৃষ্টিনন্দন ‘চেতনায় ৭১’ ভাস্কর্য নির্মাণ করেছিলেন। আর সেটি উদ্বোধন করেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। এবার ময়মনসিংহে এসে এখানকার পুলিশ সুপার (এসপি) হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনাকে উজ্জীবিত রাখার প্রয়াস নিয়েছেন। এখানেও নির্মাণ করেছেন ‘চেতনায় অম্লান’ স্মৃতিস্তম্ভ

প্রগতির পক্ষে সৃষ্টিশীল মানসিকতার অধিকারী ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) শাহ আবিদ হোসেনের এমন উদ্যোগে মুগ্ধ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। কুমিল্লার পর ময়মনসিংহেও দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্যের উদ্বোধন করলেন তিনিই। এ যেন জেলা পুলিশ সুপারের (এসপি) মেধা ও মননের এক অভূতপূর্ব সমন্বয়।

এমন দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্যে নতুনভাবে উপস্থাপিত হবে ময়মনসিংহের নাম। ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে একজন মননশীল পুলিশ সুপার হিসেবে শাহ আবিদ হোসেনের নাম, এমনটিই বলছেন নগরীর বিশিষ্টজনেরা।

বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এমপি ময়মনসিংহ সফরকালে জেলা পুলিশ লাইন্সে এ স্মৃতিস্তম্ভের উদ্বোধন করেন। মন্ত্রী যখন বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ‘চেতনায় অম্লান’ স্মৃতিস্তম্ভের উদ্বোধন করতে আসেন তখন তাঁর সামনেই এ স্মৃতিস্তম্ভের নির্মাণের রূপরেখা বিশ্লেষণ করেন এসপি শাহ আবিদ হোসেন।

এ সময় এসপি শাহ আবিদ হোসেন বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে মুক্তিযুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ গড়ে তোলা শহীদ পুলিশ সদস্যসহ মুক্তিযুদ্ধে আত্নদানকারী সকল শহীদদের স্মরণে এ স্মৃতিম্ভম্ভ নির্মিত হয়েছে। তৎকালীন ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের ৫০ জন সদস্য শাহাদাতবরণ করেন। তাদের নাম এখানে স্বর্ণাক্ষরে লেখা রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর চেতনায় তাঁরা জীবন দিয়েছেন। এজন্য স্মৃতিস্তম্ভের নামকরণ করা হয়েছে ‘চেতনায় অম্লান।’

এ সময় সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য মনিরা সুলতানা মনি, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু, ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান, পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, জেলা প্রশাসক (ডিসি) মিজানুর রহমান ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরো পড়ুন