বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে পাবেন কত দর্শক?

6

অনলাইন ডেক্স।।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী সামনে রেখে বিপিএলের এবারের আসর। তাই এবারের বিপিএলের নামকরণই করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’ নামে। খুব স্বাভাবিকভাবেই এ আসরকে আকর্ষণীয় করে তোলার সম্ভাব্য সব চেষ্টাই চলছে।

বিসিবি থেকে আগেই জানানো হয়েছে, এবার বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে বর্ণাঢ্য। জাঁকজমকে পরিপূর্ণ। ভারতীয় তথা বলিউড সুপার স্টার, নামি-দামি ও জনপ্রিয় গায়ক-গায়িকার উপস্থিতিতে একটা জমকালো, আকর্ষণীয় ও উপভোগ্য সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা আয়োজনের প্রস্তুতিই চলছে। এরই মধ্যে বলিউড সুপার স্টার সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হয়েছে।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন দু’দিন আগেই। পাশাপাশি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল সভাপতি শেখ সোহেল ও সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার চৌধুরী মল্লিকও জানিয়েছেন, অন্তত চার থেকে পাঁচ ঘণ্টার এক মনোজ্ঞ ও জমকালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের চেষ্টা চলছে।

তাদের কথা শুনে মনে হয়েছে, সত্যিই বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে জমকালো। আকর্ষণীয় ও নামি-দামি তারকায় ঠাসা। সালমান-ক্যাটরিনা ছাড়াও সনু নিগম, আরিজিৎ সিং এবং কৈলাশ খেরসহ ভারত ও বাংলাদেশের কোকিলকন্ঠী মমতাজ বেগমসহ একঝাঁক তারার মেলার উপস্থিতির সম্ভাব্য সব চেষ্টাই চলছে।

এদিকে বিপিএলের এমন আকর্ষণীয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে এরই মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে সবার মাঝে। সবার মুখে-মুখে কৌতুহলি প্রশ্ন, টিকিটের মূল্য কত? পাশাপাশি আরও একটি প্রশ্ন আসছে, তাহলো কত হাজার টিকেট ছাড়া হবে?

আজ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হসান পাপন এ সময়ের সবচেয়ে আলোচিত এবং কৌতুহলি প্রশ্নের অবসান ঘটিয়েছেন। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন কত হাজার টিকেট ছাড়া হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য?

বিসিবি বিগ বসের কথায় পরিষ্কার, সর্বোচ্চ ৮ হাজার দর্শক এবারের বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে পারবেন। তার মানে, টিকেট ছাড়া হবে আরও কম। কারণ, এরই মধ্যে বেশ কিছু, অন্তত চার থেকে পাঁচ ভাগের এক ভাগ থাকবে সৌজন্যমূলক টিকেট।

আজ দুপুর গড়িয়ে বিকেল নামতে বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি দেখতে এসে শেরে বাংলা স্টেডিয়াম ঘুরে নাজমুল হাসান পাপন সাংবাদিকদের সাথে আলাপে জানান, ‘প্রস্তুতি চলছে। এখন পর্যন্ত সব পরিকল্পনা মতোই আছে। এমন না যে হতাশ হয়ে গেছি। মূলতঃ এসেছিলাম ৮ তারিখের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য। মঞ্চের কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রীর জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হচ্ছে। কবে শেষ হবে, কী ধরণের ম্যাটেরিয়াল ব্যবহার করা হচ্ছে- এগুলো দেখলাম। যেহেতু আমাদের মাঠে (শেরে বাংলায়) দর্শকদের দেখার সুযোগ সুবিধা কম। তেমন ‘ভিউ’ নেই। সেহেতু হয়ত অল্প সংখ্যক দর্শক আমরা অনুমতি দিতে পারব।’

কেন বেশি সংখ্যক দর্শক উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে পারবেন না? এবার হোম অফ ক্রিকেটের পূর্ব দিকে মঞ্চ করা হচ্ছে। তাই পাপনের ব্যাখ্যা, আমরা সব দিক থেকে দেখাতে পারবো না। যেখানে মঞ্চ হবে, তার পিছনের অংশ থেকে কেউ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে পারবেন না। পাশ থেকেও না।’

তাই কতটা টিকেট দিতে পারব? এটা অনেক বড় প্রশ্ন। মঞ্চই হচ্ছে মাঠের ভেতরে। পিচ নষ্ট হবে কিংবা মাঠ নষ্ট হবে এমন কোনো ঝুঁকি নিতে পারব না। ওই জায়গা যদি বন্ধ থাকে, তাহলে আমরা দুই পাশে ভিআইপিদের জন্য জায়গা করতে পারব। সেটাই চূড়ান্ত করেছি। কত টিকেট কিংবা কি হবে না হবে সেটা ঠিক করলাম। এই দুইটাই ছিল প্রধান। আমাদের হিসাব অনুযায়ী আট হাজারের বেশি করাটা কঠিন হবে। মিডিয়া বক্সের এই পাশ থেকে শুরু করে আমরা এইটুকু পর্যন্ত দিতে পারছি। এখান থেকে এইটুকু। আর তো নাই। মাঠের ভিতরে কতগুলো চেয়ার দিতে পারবো। বড়জোর হাজার খানেক। এটা আমাদের এখন পর্যন্ত ধারণা। বাকিটা ওরা আলোচনা করে ঠিক করবে।’

আরো পড়ুন