ঈশ্বরদী থানার সাবেক ওসি শেখ নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনে শাস্তি দাবি

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি।।

97

বিপুল জোয়ার্দার \ ঈশ্বরদী থানার সাবেক ওসি শেখ নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে মারপিট করে হাত-পা ভাঙ্গে ও মিথ্যা মামলা দেওয়ার প্রতিবাদে ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সকালে ঈশ্বরদী উপজেলা প্রেসক্লাবে আরামবাড়িয়ার আছিয়া বেগমসহ ভুক্তভোগীরা এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আছিয়া বেগম ও তার মেয়ে শ্রাবন্তীসহ নির্যাতিতরা বক্তব্য দেন।

তারা বক্তব্যে বলেন, ওসি শেখ নাসির উদ্দিনের নির্দেশে ছোট মেয়ে লাবনীর বিয়ের অনুষ্ঠানে কয়েকজন পুলিশ সদস্য উপস্থিত হয়ে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। টাকা না দেওয়ায় আমাদের মারপিট করে থানায় ধরে আনে। থানায় এনে ওসিসহ পুলিশ সদস্যরা মেজেতে শুুইয়ে গর্ভবতী মেয়ে শ্রাবন্তীকে নির্যাতন করে। আমাকে(আছিয়াকে)মারপিট করে হাত-পা ভেঙ্গে দেওয়া হয়। পরে ১১ গ্রাম হেরোইন দিয়ে মিথ্যা মামলা করে আমাদের কোর্ট হাজতে চালান করে।

সেখানে পুলিশ হেফাজতে চিকিৎসার পর রাজশাহী মেডিক্যালে ১৪ দিন চিকিৎসা দেওয়া হয়। ওসি নাসির উদ্দিনের ঈশ্বরদী থানায় কর্মকালিন সময়ে রেকর্ডকৃত সমস্ত মামলার নিরপেক্ষ তদন্ত করলে তথ্য প্রমাণ পাওয়া যাবে । বক্তারা অপরাধের সাথে জড়িত ওসিসহ সংশ্লিষ্ট সদস্যদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি করে প্রধান মন্ত্রী,স্বারষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপির জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে ওসিসহ পুলিশের বিরুদ্ধে দেওয়া বক্তব্যের বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ঈশ্বরদী সার্কেল ফিরোজ কবীর বলেন,আছিয়া বেগম কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। সে দেহ ব্যবসার সাথে জড়িত। শুধু তাই না,তার বিরুদ্ধে পুলিশ পিটানো,হত্যাসহ এদক মাদক মামলা রয়েছে।নির্যাতিতা আছিয়া খাতুনের পক্ষে তার গর্ভবতী মেয়ে শ্রাবন্তী বক্তব্য দিচ্ছেন।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!