কাহালুর থলপাড়ায় এবার ১৯ টি খড়ের পালায় আগুন

বগুড়া প্রতিনিধি।।

93

কাহালু উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের থলপাড়া গ্রামে ১৯ টি খড়ের পালায় আগুন। প্রায় সাড়ে ৪ শ’ বিঘা জমির খড় পুড়ে ভস্মিভূত।জানাগেছে গত শনিবার গভীর রাতে একদল দৃর্বেত্ত গ্রামে প্রবেশ করে আতংক সৃষ্টি করে খড়ের পালাসহ সরিষার গাদায় আগুন লাগিয়ে দেয়।

সরিষার গাদা না পড়লেও আগুনে, জাহিদুদুর রহমান,আব্দুল হান্নান,জয়নাল আবেদীন,আব্দুল গফুর,হয়রত আলী,হায়দার আলী,আব্দুল বারী,আব্দুল কুদ্দুস এর সহ ১৯ টি খড়ের পালার সাড়ে ৪শ’ বিঘা জমির খড় সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। এত প্রায় ১০/১২ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়। সংবাদ পেয়ে দ্রæত ফায়ার সার্ভিসের লোকজন সেখানে গেলেও গ্রামে প্রবেশের রাস্তা প্রস্থ না হওযায় ঘটনাস্থলে পৌছিতে ব্যর্থ হন। সংবাদ পেয়ে কাহালু থানা পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থলে পৌছেন।

উল্লেখ্য ফুট-বল খেলাকে কেন্দ্রকরে সৃষ্ট মার-পিটের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই ভয়াবহ অগ্নীকান্ডের ঘটনা হতে পারে। দু’গ্রামবাসীর মাঝে মার-পিটের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ বামুজা গ্রামের মহিউদ্দিন মোহন বাদী হয়ে প্রতিপক্ষ থলপাড়ার ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞতনামা আরও ৩০/৪০ জনকে আসামী করে কাহালু থানায় গত ১৫ ফেব্রæয়ারী ০৫ নং একটি মামলা করে। মামলার পর হতে ঐ আসামীরা পালিয়ে থাকেন।এদিকে প্রতিপক্ষের লোকজন প্রায় তাদের প্রতিশোধের হুমকী ও ভয়-ভীতি কারণে গ্রামটি পুরুষ শুন্য হয়ে পড়েছে।

এই সুযোগে কে বা কাহারা অগ্নীকান্ডের ঘটনা ঘটায়।বিষয়টি নিয়ে কাহালু থানা ওসি’র সাথে কথা বলা হলে তিনি জানান এখন পর্যন্ত খড়ের পালা পোড়ানোর কোন মামলা হয়নি বা কেউ মামলা করতে আসেনি। এদিকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও পুলিশ প্রশাসন দফায় দফায় দু’পক্ষকে নিয়ে মিমাংসার চেষ্ঠা করেও কোন এক অদৃশ্য কারণে তা ব্যর্থ হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। বিষয়টি নিয়ে যেকোন মহূত্বে আবারও রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে বলে মন্তব্য এলাকাবাসীর।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!