কুমিল্লায় বিভিন্ন মার্কেটে মাস্ক না পরায় ক্রেতা-বিক্রেতাকে অর্থদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

85

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় মাস্ক ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় কঠোর হচ্ছে প্রশাসন। বৃহস্পতিবার নগরীর সাত্তার খান কমপ্লেক্স ,খন্দকার হক টাওয়ার ও ময়নামতি সুপার মার্কেটে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছেন আদর্শ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিয়া আফরিন। এসময় মাস্ক পরিধান সহ স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ক্রেতা-বিক্রেতাসহ ২১ জনকে ৩ হাজার ৯৫০ টাকা অর্থদন্ড করা হয়।

এসময় তিনি করোনা সংক্রমণ ঝুঁকি রোধে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করার পাশাপাশি নগরীর শপিংমল ও বিপনী বিতানগুলির সামনে হাতধোয়ার বেসিন কার্যকর করা, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা দেন।

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সূত্র জানান, গত ১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার থেকে উপজেলা প্রশাসন স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় জোরালোভাবে মাঠে নেমেছেন। কুচাইতলী কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ এলাকায় ও বুধবার টমসন ব্রীজ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিয়া আফরিন।

তিনি জানান, করোনার ২য় ধাপ সামলাতে আমরা মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করছি। যাতে কেউ মাস্ক না পরে বাহিরে বের না হয় ঐ দিকে মোবাইল কোর্টে ব্যবস্থা নিচ্ছি। এছাড়া অসচেতন অসহায়দের মাঝে মাস্ক বিতরণ করছি। এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। সবাই সচেতন হোন,মাস্ক ব্যবহার করুন।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!