কুমিল্লায় লাইসেন্স-হেলমেটবিহীন বাইক আরোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু

মাহফুজ নান্টু,কুমিল্লা।

539

কারো লাইসেন্স নেই। কারো বা হেলমেট নেই। এমন সব বাইক আরোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে কুমিল্লা জেলা প্রশাসন। সোমবার পরিচালিত অভিযানে ৫০ টি মামলায় ১৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

কুমিল্লা নগরীর অন্যতম প্রবেশদ্বার শাসনগাছা। রেলওয়ে ওভারপাস দিয়ে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বেপোরোয়া থাকে বাইক আরোহীরা। সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নগরীর শাসনগাছা রেলওয়ে ওভারপাস রেইসকোর্স ও পুলিশ লাইনস পর্যন্ত চেকপোস্ট বসিয়ে অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় তিনজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট অভিযান পরিচালিত করেন।

নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আবু সাঈদ জানান, অভিযানে মোটরবাইক আরোহীদের লাইসেন্স ও হেলমেটের বিষয়টিকে প্রাধান্য দিয়ে অভিযান শুরু করি। সোমবার দুপুর পর্যন্ত অভিযান পরিচালিত হয়। এসময় সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর বিভিন্ন ধারায় ৫০ টি মামলায় মোট ১৬০০০ টাকা জরিমানা আদায় করি।

অভিযানটিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন কুমিল্লার সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ। বীরমুক্তিযোদ্ধা জহিরুল হক দুলাল বলেন, অবশ্যই সারা বছর ধরে এমন অভিযান পরিচালনা হওয়া উচিৎ। এতে করে উচ্ছৃংখল তরুণরা শৃংখলায় ফিরবে।

সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)র সভাপতি বদরুল হুদা জেনু বলেন, লাইসেন্সবিহীন মোটরবাইকগুলো দিয়ে বেশী অপরাধ সংঘটিত হয়। তাই জেলার আইনশৃংখলা বাহিনী, বিআরটিএ ও জেলা প্রশাসনের সবোর্চ্চ কঠোর হওয়া উচিৎ। আর অবশ্যই এমন অভিযান অব্যহত রাখতে হবে। তাহলে অপরাধ ও দূর্ঘটনায় প্রানহানী হ্রাস পাবে।

অভিযানের প্রসঙ্গে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোঃআবুল ফজল মীর বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কিছু মোটরবাইক দূর্ঘটনায় প্রানহানীর ঘটনা ঘটেছে। ওইসব বাইক আরোহীদের হেলমেট ছিলো না। এছাড়া লাইসেন্সবিহীন বাইক আরোহীরা বেপোরোয়া হয়ে থাকে। সচেতনতা বৃদ্ধি ও দূর্ঘটনায় প্রানহানী হ্রাস করতে কুমিল্লা জেলা প্রশাসন বদ্ধপরিকর। তাই হেলমেট ও লাইসেন্সবিহীন আরোহীদের বিরুদ্ধে এমন অভিযান অব্যহত থাকবে।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!