কুমিল্লায় “লেটস ওয়ার্ক আউট” জিম সেন্টার উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদন।।

১৭০

কুমিল্লায় অত্যাধুনিক সুযোগ সুবিদা নিয়ে সম্পূর্ণ নতুন আঙ্গিকে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে কেক কেটে “লেটস ওয়ার্ক আউট” নামে জিম সেন্টারের শুভ উদ্বোধন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (০১ ডিসেম্বর ২০২১খ্রিঃ) রাত সাড়ে ৮ টায় কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ২১নং ওয়ার্ডের মধ্যম আশ্রাফপুর শাপলা ভবন সুপার মার্কেটের ২য় তলায় এই জিম সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়।কুমিল্লার এই জিম সেন্টারে গিয়ে দেখা গেলো কিছু ব্যতিক্রমী চিত্র। তারুণ্যের উচ্ছ্বাস তাদের দেহমনে। আর সেটাকে আরো অটুট এবং সতেজ রাখতে শরীর চর্চায় মনোযোগী হয়ে উঠছেন তাঁরা। যার অন্যতম মাধ্যম জিমের যন্ত্রপাতি নিয়ে তরুণের দল ব্যস্ত ব্যায়ামে।

পেছন ফিরে তাকানোর ফুসরৎ নেই কারো। ঘাম ঝরছে শরীরের। নিয়ম মেনেই চলছে একের পর অনুশীলন, খানিকটা বিরতি দিয়ে। চারপাশটাও বেশ খোলামেলা। মৃদু যন্ত্রসঙ্গীতের (মিউজিক) সুর ভেসে আসছে। এর মধ্যেই চলছে প্রশিক্ষণ। থরে থরে সাজানো রয়েছে জিমের যন্ত্রপাতি। যে যার প্রয়োজন মতো ব্যবহার করছেন সেগুলো।
সরেজমিনে ঘুরে জানা গেছে, কুমিল্লার তরুণরা মাদককে এক কথায় ‘না’ বলছে।

আর তা ভালোভাবে বুঝা যায় নগরীতে গড়ে উঠা এই জিমে গিয়ে। নিয়মিত শারিরীক ব্যায়ামের পাশাপাশি বডি বিল্ডিংয়েও নজর দিচ্ছেন তারা। জিমের সদস্য, পিয়ারলেস ম্যাটস এর চেয়ারম্যান গোলাম সরোয়ার বললেন, ‘শরীর ফিট রাখতেই আমি জিমে ভর্তি হয়েছি। খালি হাতে এক্সারসাইজের চাইতে ইনস্ট্রুমেন্টাল এক্সারসাইজই আমার কাছে ভালো লাগে। জিমে সেই সুযোগ রয়েছে বলে এখানে আসা।

জানা গেছে, জিমগুলোতে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতির মধ্যে রয়েছে মাল্টিপারপাস মেশিন, চেস্ট প্রেস, রানিং মেশিন, স্মিথ মেশিন, বাটারফ্লাই, ক্রস বার, কুল ডাউন, ইলেকট্রিক কেব্ল রো, লেগ কার্ল প্রভৃতি।জিমের প্রশিক্ষক ডাঃ রায়হান আহমেদ হৃদয় ও মোঃ রিয়াজুল ইসলাম জানান, এক সময় কুমিল্লার জিমগুলোর বেহাল অবস্থা থাকলেও বর্তমানে জিমগুলোতে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতির সমস্বয়ে নতুন অঙ্গিকে সাজানো হয়েছে।

জিমের স্বত্বাধিকারী সাব্বির আহমেদ জানান, মাদকমুক্ত সমাজ গঠনের লক্ষ্যে আমি এই উদ্যোগ গ্রহণ করি। আমি চ্যালেঞ্জ নিয়ে কুমিল্লার মধ্যম আশ্রাফপুর ইয়াছিন মার্কেটের শাপলা ভবনের ২য় তলায় আমার প্রতিষ্ঠানটি স্থাপন করি। বর্তমানে আমার জিমে অনেক সদস্য রয়েছে। এরা নিয়মিত জিম করছে। এছাড়া বর্তমানে তরুণরাও জিমের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠছে। ইতিমধ্যে তরুণদের ব্যাপক সাড়া পেয়েছি।

ভালোভাবে প্রশিক্ষণ দিচ্ছি । আশা করি তরুণরা আরো আসবে। বর্তমানে আমাদের জিমে অত্যাধুনিক সব যন্ত্রপাতির সমন্বয়ে সাজানো হয়েছে। তরুণরা এতে আরো উৎসাহিত হয়েছে।আমাদের জিমে অনেক সদস্য আছে। কুমিল্লার তরুণরা জিমে আগ্রহী। তবে সব বয়সী মানুষই এখানে আসে। জিমগুলোতে নতুন কোন সদস্য ভর্তি হলে তাকে অন্তত ৫দিন খালি এক্সাসাইজ করতে হয়। এরপর থিউরি অনুযায়ী এক্সাসাইজ করানো হয়। জিমে ফিজিওথেরাপিস্ট নিয়োজিত রয়েছেন বিভিন্ন শারীরিক সমস্যার সমাধানের জন্য।

জিমে আসা কয়েকজন সদস্য বললেন,সুন্দর জীবনের জন্য শরীরচর্চা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এই জিম সেন্টারের লোকজন অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে আমাদের সবাইকে শরীরচর্চা করতে সাহায্য করে। এখানে যত্ন সহকারে শরীরচর্চার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এই ফিটনেস সেন্টারটি এখন কুমিল্লার অত্যাধুনিক শরীরচর্চা কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত।
উক্ত জিম সেন্টারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে আছেন মোঃ হারুনুর রশিদ।এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, মীর মাহফুজুর রহমান,কাজী আবুল কালাম,মোঃ কবির আহমেদ, কাজী অলিউল্লাহ, মোঃ নূর হোসেন রয়েল, মোঃসেলিম খান,সুমন ও মার্কেটের মালিক বাবু।

আয়েশা আক্তার/অননিউজ24

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!