কুমিল্লা নগরীতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়ী ভাংচুর, ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম

স্টাফ রিপোর্টার।।

295

কুমিল্লা মহানগরীর ২১নং ওয়ার্ডের মধ্যম আশ্রাফপুরে অবস্থিত মর্ডাণ হাউজিংয়ে বাড়ী নির্মাণ কাজে চাঁদা না দেয়ায় লোকজন নিয়ে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে থাই গ্লাস ভাংচুর ও ঠিকাদার কাজী নয়নকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দলবল নিয়ে দেশীয় অস্ত্রের মহড়া দিয়ে বাড়ীর সামনে রাখা ৫০ পিছ থাই গ্লাস নিয়ে যায় ও বাড়ীর মালিকসহ কয়েকজনকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) ২০ইং দুপুর ৩টার দিকে মর্ডাণ হাউজিংয়ের আবদুল মতিনের বাড়ীতে এঘটনা ঘটে। এসময় ঠিকাদার মোঃ কাজী নয়নকে কুপিয়ে করে জখম করা হয়। পরে স্থানীয়রা সন্ত্রাসীদের ধাওয়া দিলে তারা দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় সিসিটিভির ক্যামেরায় ধরা পড়ে। এতে সিসিটিভির ফুটেজ দেখে চিহ্নিত করে দুজনকে আটক করে পুলিশ।

পরে জখমী কাজী নয়ন বাদী হয়ে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মনির হোসেন, মোঃ সবুজ, মোঃ রুবেল, মোঃ জীবন, মোঃ হাবিব ও মোঃ খলিলকে অভিযুক্ত করে আরো অজ্ঞাত ২০/২৫ রেখে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৩৮।

মামলা সূত্রে জানাযায়, মামলার বাদী কাজী নয়ন মধ্যম আশ্রাফপুর এলাকায় ইঞ্জিনিয়ার মটর ওয়ার্কসপ নামে প্রতিষ্ঠান নিয়ে ব্যবসা করে আসছেন। বিভিন্ন বাসা বাড়ীতে লোহার গেইট নির্মাণ, দরজা-জানালার কাজ করে আসছেন। অভিযুক্তরা দির্ঘদিন থেকে তাকে ঠিকাদারী নিয়ে কোন্দল ও ব্যবসা করতে দিবে না বলে হুমকি দিয়ে আসছে। গত বৃস্পতিবার মডার্ণ হাউজিংয়ের আবদুল মতিনের বাড়ীর গেইট ও থাই গ্লাস লাগানো নিয়ে অভিযুক্তরা দলবল নিয়ে হামলা চালায়, বাড়ীর সামনে রাখা ৫০ টি থাই গ্লাস নিয়ে যায়, যার আনুমানিক মূল্য ১লক্ষ ৫ হাজার টাকা ও ভাংচুর করা জানালাসহ আরো ৮০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে।

এবিষয়ে ইপিজেড ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, দু পক্ষের মারামারি হয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে ২জনকে আটক করা হয়েছে। মামলার তদন্তের জন্য সাব ইন্সপেক্টর শাহ আলমকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!