চিকিৎসকদের ‘বিশেষায়িত’ পদে প্রশাসনের কর্মকর্তা নিয়োগে ক্ষোভ

অনলাইন ডেক্স।।

27

স্বাস্থ্য অধিদফতর, ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরে চিকিৎসকদের বিশেষায়িত পদসমূহে সম্প্রতি প্রশাসন ক্যাডার ও অন্য বিভাগের কর্মকর্তাদের পদায়নের পরিপ্রেক্ষিতে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) রাজধানীর তোপখানা রোডে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) ভবনের শহীদ ডা. শামসুল আলম খান মিলন সভাকক্ষে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সঙ্গে দেশের জ্যেষ্ঠ চিকিৎসক নেতৃবৃন্দের এক মতবিনিময় সভায় এ ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়।

বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ডা. এম ইকবাল আর্সলান ও মহাসচিব ডা. এম এ আজিজ, বিএমএ’র সাবেক সভাপতি ডা. মো. সোহরাব আলী ও ডা. রশিদ-ই-মাহবুব, বিএমএ সাবেক মহাসচিব ডা. মো. শফিকুর রহমান ও ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, বিসিপিএসের সাবেক সভাপতি ডা. মো. সানোয়ার হোসেন, স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক ডা. শাহ মনির হোসেন ও ডা. দ্বীন মোহাম্মদ নুরুল হক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, বিএমডিসির সভাপতি ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লাহ, বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল প্র্যাকটিশনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মো. মনিরুজ্জামান ভূঁইয়া ও মহাসচিব ডা. মো. জামাল উদ্দিন চৌধুরী, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের মহাসচিব ডা. কামরুল হাসান খান, পরিবার পরিকল্পনা সরকারি চিকিৎসক সমিতির সহ-সভাপতি ডা. নাসিম আখতার এরিনা ও মহাসচিব ডা. মো. মুনীরুজ্জামান সিদ্দীকী, বিএমএ কোষাধ্যক্ষ ডা. মো. জাহিদ হোসেন, বিএমএ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ডা. মো. আবুল হাসেম খান, সোসাইটি অব ল্যাপারোস্কোপিক সার্জনস অব বাংলাদেশের সভাপতি ডা. সরদার নাঈম, ল্যাব এইড গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. এ এম শামীম, বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এম এ মুবিন খান।

সভা পরিচালনা করেন বিএমএ মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী। স্বাস্থ্য অধিদফতর, ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের চিকিৎসকদের বিশেষায়িত পদসমূহে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে নিয়োজিত প্রশাসন ক্যাডার ও অন্য বিভাগের কর্মকর্তাদের পদায়ন করায় সভায় এর তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়।

সভায় এ ধরনের পদায়ন অনতিবিলম্বে বন্ধ করা এবং যাদের পূর্বে পদায়ন করা হয়েছে তাদের অতিদ্রুত প্রত্যাহার করতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়। চিকিৎসক ও চিকিৎসা পেশার মর্যাদা রক্ষায় যেকোনো ধরনের অপচেষ্টা রোধে চিকিৎসক সমাজ ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবে। এ লক্ষ্যে করণীয় নির্ধারণে জরুরিভিত্তিতে দেশের প্রত্যেক জেলা বিএমএ ও স্বাচিপের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে যৌথ সভা আয়োজন এবং সকল ক্যাডারে পার্শ্বপ্রবেশ রোধ ও পেশাভিত্তিক প্রশাসন গড়ার লক্ষ্যে অন্যান্য পেশাজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

পরবর্তীতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে গৃহীত কর্মসূচি দেশবাসীকে অবহিত করা হবে বলেও জানানো হয়।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!