ছিনতাইয়ের টাকায় করেছেন ঘর নির্মাণ, নিয়েছেন জমি বন্ধক

আহসানুজ্জামান সোহেল/কুমিল্লা।।

৯৫

কুমিল্লা সুয়াগাজী হাকিম ফিলিং ষ্টেশন এর দুজন ম্যনেজার এর কাছ থেকে পৌন ১৭ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। ছিনতাইকারী সেই টাকা নিয়ে করেছেন ঘর নির্মাণ, নিয়েছেন জমি বন্ধক। অবশেষে ছিনতাই চক্রের এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে রোববার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা বিভাগের উপ-পরিদর্শক পরিমল দাশ। মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ১৬ আগস্ট জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার হাকিম সিএনজি ও পেট্রোল পাম্পের দুজন ম্যানেজার তেল বিক্রির ১৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকা ব্যাংকে জমা দেয়ার জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সুয়াগাজী এলাকায় পৌঁছালে একটি সাদা মাইক্রোবাসে করে ছিনতাইকারীরা গিয়ে ভয় দেখিয়ে জোড় পূর্বক টাকা ছিনিয়ে নেয়।

এর একদিন পরে উল্লেখিত ফিলিং ষ্টেশন এর মালিক সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে সদর দক্ষিণ থানায় অজ্ঞাত পরিচয়ে ৩-৪ জনকে আসামি করে মামলা করেন। তদন্তের জন্য মামলাটি গত শুক্রবার জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিমল দাশ বলেন, ‘মামলাটি হস্তান্তরের পর তথ্য প্রযুক্তির সহয়তায় তদন্ত শুরু করি। শনিবার গভীর রাতে ঢাকার সবুজবাগ থানার আহম্মদবাগ এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে শিমুল হোসেন নামের একজনকে গ্রেপ্তার করি। সে সময় তার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা জব্দ করি।’

তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের শিমুল হোসেন জানান তিনি বাকি টাকা দিয়ে ঘর নির্মাণ করেছেন। কিছু টাকা দিয়ে নিয়েছেন জমি বন্ধক।’ এর আগে মামলায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। ছিনতাইয়ের সময় তিনজন ছিল বলে নিশ্চিত হয়েছে ডিবি। অন্যজনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে বলেনও জানান তিনি।

রোববার দুপুরের পর শিমুল বিচারিক হাকিম ৯ নং আমলী আদালতের বিচারক বেগম রোকেয়া আক্তারের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। এরপর বিচারক তাকে কারগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলেও জানান পরিমল দাশ।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!