ঝিনাইদহের নয়া পর্যটনকেন্দ্র বামনাইল বিল

এম এ কবীর, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি।

53

অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর বামনাইল বিল। বিলটিকে ঘিরে গড়ে উঠেছে আকর্ষনীয় পর্যটন কেন্দ্র। ঝিনাইদহ সদর উপজেলা শহর থেকে ২৬ কিলোমিটার ও কালীগঞ্জ উপজেলা শহর থেকে প্রায় ১৮ কিলোমিটার দুরে এ বিলের অবস্থান। বিলটি মূলত ঝিনাইদহ ফুরসন্ধি ইউনিয়নের অবস্থিত। বিলটির পাশে রয়েছে বেগবতী নদী। প্রতিদিন অসংখ্য ভ্রমন পিপাসু মানুষ বামনাইল বিলের মনোরম সৌন্দর্য উপভোগের জন্য দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসছে। ছোট ছোট নৌকায় করে বিলের মধ্যে ও নদীতে ভ্রমন করছে। বিলটি দৈর্ঘ্য ৫ কিলোমিটার ও প্রস্থ্য ৩ কিলোমিটার।

এলাকার একাধিক ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানা গেছে, বামনাইল বিলটি যশোর, ঝিনাইদহ ও মাগুরা জেলার সীমান্ত মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত। তবে এটি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ফুরসন্ধি ইউনিয়নের বামনাইল গ্রামের নামকরণে বিলটির নাম হয়েছে বামনাইলের বিল।

বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে খাল, বিল, নদীতে পানি থাকায় চারিদিকে এক নয়নাভিরাম দৃশ্যের অবতরণা ঘটে। সেই সাথে বেড়েছে বিলের থই থই করা স্বচ্ছ পানি। চারিদিকে শুধু সবুজের সমারোহ আর মাঝে অপরূপ বিলের ছলছল করা পানি বাতাসে দোল খাচ্ছে।

প্রতিদিন বিকেলে বামনাইলের বিলে অসংখ্য মানুষ আসে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য। বিলের কোনায় কোনায় রয়েছে নৌকা। অনেকে নৌকা ভাড়া করে বিলে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

কালীগঞ্জ উপজেলার তেঘুরিহুদা গ্রামের শাকিল আর সালাম নামের শিক্ষিত যুবক জানান, তাদের বাড়ির কাছেই এমন সুন্দর জায়গা আছে তা তিনি জানতেন না। লোকমুখে খবর পেয়ে বিল দেখতে এসেছেন। বিলটি দেখতে অপরূপ। যেকোন মানুষ বিলের মনকাড়া দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হবেন। তিনি আরো জানান, এখানে প্রতিদিন বন্ধুবান্ধব নিয়ে দলবদ্ধভাবে অনেকেই আসছেন।

আব্দুর রহমান নামের এক শিক্ষক জানান, তিনি লোকমুখে শুনে কালীগঞ্জ থেকে বিলটি দেখতে এসেছেন। বিলটি দেখতে আসলেই চমৎকার। তিনি আরো বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে একটু নিরিবিলি পরিবেশে বেড়াতে পেরে খুবই ভাল লাগছে। বিলের মনোরম দৃশ্য আর নদীতে নৌকা ভ্রমণ এখানকার আকর্ষনীয় দিক। গ্রামীণ শান্ত নিরিবিলি পরিবেশে সময় কাটাতে বামনাইল বিলটি অনেকটা পর্যটন কেন্দ্রে পরিনত হয়েছে।

ঝিনাইদহের ফুরসন্ধি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সুশেন শিকদার জানান, এ বিলের ঐতিহ্য মানুষ পূর্বে থেকেই উপভোগ করে আসছে। তিনি আরো আরো জানান, গত কোরবানীর ঈদের পর থেকে ঝিনাইদহ, কালীগঞ্জ, যশোরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে দর্শনার্থীরা এখানে আসছে। তারা নৌকা ও ট্রলারে করে সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে বিলের মধ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এটা দেখে আমাদেরও ভাল লাগছে। তিনি ভ্রমণ পিপুসাদের যাবতীয় নিরাপত্তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!