দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে পদত্যাগ করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন আওয়ামী লীগ নেতা

নজরুল ইসলাম শুভ,সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) :

৫৫

দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আরিফ মাসুদ বাবু।

সোমবার দুপুরে সোনারগাঁয়ের একটি রেস্তোরাঁয় সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ ঘোষণা দেন। তিনি উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সাবেক সাংসদ সাজেদ আলী মিয়ার ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে আরিফ মাসুদ বলেন, ‘আমার বাবা সাজেদ আলী মিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর এবং ১৯৭০ সালের নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। আমার বড় ভাই মোবারক হোসেন দুবারের সাবেক সংসদ সদস্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। আমার ভাতিজা আবদুল্লাহ আল কায়সার সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক। আমার পরিবারের তিন প্রজন্ম আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।’

আরিফ মাসুদ আরও বলেন, ‘সারা দেশে আওয়ামী লীগের জন্য ত্যাগ স্বীকার করা কয়েকটি পরিবারের মধ্যে আমাদের পরিবার একটি। ৭০ বছর ধরে আমাদের পরিবারের সদস্যরা প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে দলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ পরিবার হিসেবে আমাদের পরিবারের পরিচিতি আছে। দল করে আমাদের পরিবারের সদস্যরা হামলা-মামলার স্বীকার হয়েছেন। বছরের পর বছর জেল খেটেছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে আরিফ মাসুদ বলেন, ‘আমি পরপর দুবার মোগরাপাড়া ইউপিতে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছি এবং বর্তমান চেয়ারম্যান। দলে আমাদের পরিবারের এত অবদান থাকার পরও আমাকে দলের মনোনয়ন থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে আমাদের পরিবারের এমন করুণ পরিণতি হবে ভাবতেই পারিনি। তাই দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলের নেতা-কর্মীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে আজ থেকে আমি দল থেকে পদত্যাগ করলাম। আমি ইতিমধ্যে আমার পদত্যাগপত্র উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির কাছে জমা দিয়েছি।’

আরিফ মাসুদ বলেন, দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতি ক্ষোভ থেকেই তিনি পদত্যাগ করেছেন। যেহেতু এই ইউনিয়নের (মোগরাপাড়া) ভোটাররা তাঁকে নির্বাচন করার অনুরোধ জানিয়েছেন। তাই ভোটারদের আগ্রহের কারণে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করবেন। আগামীকাল (মঙ্গলবার) তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেবেন। আগামী ১৫ জুন ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আজ মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!