দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর ভারতের পর্যটন ভিসা পরিষেবা শুরু চলতি মাসে

আহসানুজ্জামান সোহেল, কুমিল্লা।।

১১৬

কোভিট-১৯ মহামারির এর কারনে ২০২০ সালের মার্চ মাসের পর থেকে বন্ধ হয়ে যাওয়া সীমান্ত বিদেশী পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়। বর্তমান সময়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাওয়ায় পর্যটন খাতের মাধ্যমে অর্থনীতির চাকা পুনরায় সচল করার উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে দেশটির সরকার অন্যান্য ভিসার পাশাপাশি ট্যুরিষ্ট ভিসা পুনরায় চালুর ঘোষণা দিয়েছে।

দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণার পর থেকে করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্থ পর্যটন, এবং পর্যটন সংশ্লিষ্ট বিমান পরিবহন খাতকে পুনরায় ঘুড়ে দাড়ানোর প্রচেষ্টায় পদক্ষেপ নিয়েছে নয়াদিল্লি। এই বিষয়টি বিবেচনায় রেখে গত ১৯ সেপ্টেম্বর এক বিবৃতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় প্রথম পাঁচ লাখ বিদেশী পর্যটককে বিনামূল্যে ভিসা দেওয়ার কথাও জানিয়েছিল দেশটির সরকার।

এই ধারাবাহিকতায় ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে বিদেশীদের নতুন করে পর্যটন ভিসা দেয়া শুরু করবে ভারত। এ ভিসা প্রাপ্তিরা শুধুমাত্র চার্টার্ড ফ্লাইটে করে ভারতে যাবেন এই শর্তে পর্যটকরা এয়ার বাবল ফ্লাইটের আওতায় আগামী ১৫ অক্টোবর থেকে পর্যটন ভিসা দেয়া হবে। ভারতীয় হাইকমিশন থেকে আরো জানানো হয় যেহেতু ১২ই অক্টোবর মঙ্গলবার থেকে পর্যটন ভিসা পরিষেবা শুরু হবে, তাই ভিসা খুলে দেয়ার পর যারা দলগত ভাবে নির্ধারিত চাটার্ড ফ্লাইটে ভ্রমন করবেন তারাও পর্যটন ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

ভ্রমনের জন্য সদ্যপ্রাপ্ত পর্যটক ভিসা নিতে হবে এবং এ ক্ষেত্রে পর্যটকদের পূর্বে দেয়া বৈধ পর্যটক ভিসা থাকলেও তাদেরকে নতুন করে ভিসা নিতে হবে বলে জানানো হয়। আপাদত বৈধ পর্যটক ভিসা শুধুমাত্র বিমান বা সমুদ্রপথে ভ্রমনের জন্য বৈধ বলে গন্য হবে। স্থলপথে পর্যটকদের ভ্রমনের ক্ষেত্রে এখনো কোন নির্দেশানা হাইকমিশন থেকে দেয়া হয়নি তবে ক্রমান্বয়ে আকাশপথের সাথে সমন্বয় করে অল্প সময়ের মধ্যেই স্থল পথেও ভ্রমনকারীরা ভারতে আসা যাওয়া করতে পারবেন বলে আশা করা যায়।

ভারতের ভ্রমন ভিসা চালু হলে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাবসায় ফিরে আসবে প্রানচাঞ্চল্য, সংশ্লিষ্ট অর্থনীতি খাতের পাশাপাশি পর্যটন খাত ফিরে পাবে তার পুরোনো রুপ।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!