নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব সবুজের মৃত্যু বার্ষিকী পালন

শাহাদাত হোসেন, মনোহরগঞ্জ।।

94
২৫ ফেব্রুয়ারী মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব ও সভাপতি শহীদুল্লাহ খাঁন সবুজের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১৪ সালের এ দিনে নশ্বর এ পৃথিবীর মায়া ছেড়ে আকস্মিকভাবে বিদায় নিয়েছিলেন ছাত্রলীগ নেতা শহীদল্লাহ খাঁন সবুজ। সেদিনের মঙ্গলবারটি ছিল তার স্বজনদের জন্য অমঙ্গলকর দিন। সেদিন মর্মান্তিক এক দুর্ঘটনা কেড়ে নিয়েছিল মেধাবী এ ছাত্রলীগ নেতার প্রাণ। সবুজের স্বজনরা আজও দুর্ঘটনার এ স্মৃতি বয়ে বেড়াচ্ছেন।
ওইদিন সন্ধায় মনোহরগঞ্জের বাইশগাঁওয়ে দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে উপজেলা নির্বাচনের প্রচারণা শেষে মোটরসাইকেল যোগে উপজেলা সদরের দিকে ফিরছিলেন শহীদুল্লাহ খাঁন সবুজ। দাদঘর নামক এলাকায় এলে সংযোগ সড়ক থেকে আরেকটি মোটরসাইকেল এসে তাকে সজোরে ধাক্কা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে অবস্থার অবনতি হলে কুমিল্লার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১০টায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
শহীদুল্লাহ খাঁন সবুজের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে কবর যেয়ারত, মিলাদ মাহফিল, পুষ্পস্তবক অর্পণ, শোক র‌্যালী, কালো ব্যাজ ধারণ, ও স্মরণ সভার করেছে মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ। মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ কামরুজ্জামান শামীম বলেন, ‘শহীদুল্লাহ খাঁন সবুজের নাম রাজপথ থেকে মুছে যাবে না। সে অমর হয়ে আছে ছাত্রলীগের প্রাণে প্রাণে। প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে তার নামটি। আমরা এখনো প্রিয় এই সবুজ ভাইয়ের শূন্যতা অনুভব করি। তার শূন্যতা কখনোই পূরণ হওয়ার নয়। সে আমারদের মনে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে।
তার পদাঙ্ক অনুসরণ করেই এগিয়ে যাবে নতুন প্রজন্মের ছাত্রলীগ। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের নব নির্বাচিত সভাপতি কামরুজ্জামান শামীম, সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন বিপ্লব, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা বেলায়েত হোসেন ইকবাল, বাইশগাঁও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিমউদ্দিন বাহার, ঝলম দক্ষিণ ইউনিয়ন শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি ইরফাত আহমেদ ইবু, সরসপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মিঠু, উপজেলা ছাত্রলীগের প্রমূখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
আরো পড়ুনঃ