নানা আয়োজনে চুয়াডাঙ্গায় পালিত বিশ্ব এইডস দিবস

182

অনলাইন ডেক্স।।

“এইডস নির্মূলে প্রয়োজন, জনগণের অংশগ্রহণ” এই প্রতিপাদ্যে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে চুয়াডাঙ্গায় পালিত হয়েছে বিশ্ব এইড দিবস।

সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে রোববার (১ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় হাসপাতাল চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই জায়গায় এসে শেষ হয়।

পরে হাসপাতালের সেমিনার কক্ষে সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালক দীপক কুমার সাহা বক্তব্য রাখেন।

এসময় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা, ডাক্তার ও নার্সগণ উপস্থিত ছিলেন। ‘এইডস থেকে বাঁচতে কি করণীয়’এর উপর মূল প্রতিপাদ্য উপস্থাপন করেন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. শামীম কবির। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, সিভিল সার্জন অফিসের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা রবজেল হোসেন।

এসময় আরা উপস্থিত ছিলেন, সদর হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (চক্ষু) ডা. শফিউজ্জামান সুমন, জুনিয়র কনসালটেন্ট (সার্জারি) তারিক হাসান শাহীন, কনসালটেন্ট (গাইনী) ডা. আকলিমা খাতন, কনসালটেন্ট (কার্ডিওলজি) ডা. আবুল হাশেম, ডেন্টাল সার্জারি ডা. জয়নাল আবেদীন, জুনিয়র কনসালটেন্ট (অ্যানেসথেসিয়া) ডা. গোলাম মোর্শেদ ডালিম। এছাড়াও, নার্সিং সুপার ভাইজার ফেরদৌস আরা গিনি ও তরুলতা মন্ডলসহ হাসপাতালের কর্মকর্তা কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে এইচআইভি সংক্রমণের হার কম হলেও সম্ভাব্য সব কারণ ও ঝুঁকিপূর্ণ আচরণ বিদ্যমান।

উচ্চ মাত্রায় আক্রান্ত দেশসমূহের সাথে ভৌগোলিক অবস্থান, দীর্ঘ সীমান্ত পথ, মানবপাচার, সুঁইয়ের মাধ্যমে মাদক গ্রহণ, পেশাভিত্তিক যৌনকর্ম, এইচআইভি-বিষয়ক অপবাদ ও বৈষম্য, নিরক্ষরতা ইত্যাদি কারণে সাধারণ সাধারণ মানুষের মাঝে এইচআইভি আক্রমণের ঝুঁকি বিদ্যমান।

এসব বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি ও সতর্ক থাকার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান বক্তারা।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!