নিউজিল্যান্ডে জাতীয় জরুরি অবস্থা জারি

অনলাইন ডেস্ক।।

35
করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ হিসেবে আজ মধ্যরাত থেকে সম্পূর্ণ ‘লকডাউন’ শুরু হচ্ছে নিউজিল্যান্ডে। এমন সময়ে এই প্রতিরোধ ব্যবস্থা আরও জোরালো পদক্ষেপ নিল দেশটির সরকার। প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ড আর্ডান দেশজুড়ে জাতীয় জরুরি অবস্থা জারি করেছেন।
নিউজিল্যান্ডে করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তের ঘটনা বেড়ে এখন ২০৫। এদিকে দেশটির সরকার সবার জন্য সেল্ফ আইসোলেশন বাধ্যতামূলক করেছে। স্থানীয় সময় আজ বুধবার মধ্যরাত থেকে এক মাসের জন্য বন্ধ হবে অপ্রয়োজনীয় সেবা, স্কুল এবং সব ধরনের অফিস-আদালত।
প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডান পার্লামেন্টকে বলেন, ‘আজ মধ্যরাত থেকে ভাইরাসকে তার গতিপথে সামনে আগানো বন্ধ করতে আমরা চার সপ্তাহের জন্য আত্মগোপনে চলে যাবো। পরিস্থিতি ভালো হওয়ার আগে কেউ কোনো ভুল করবেন না, তাহলে কিন্তু পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে যাবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘আগামী সপ্তাহ এবং তারও পরে আক্রান্তের ঘটনা বাড়বে। তারপরই আমরা বুঝতে পারবো যে আমরা প্রকৃতপক্ষে কতটা সফল হলাম। তিনি পার্লামেন্টকে জানান, ‘কমিউনিটির মধ্যে দ্রুত কোভিড-১৯ ছড়াতে পারে এমন প্রমাণ পাওয়ার পরই আমরা লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নেই।‘
দেশটিতে বুধবার নতুন করে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৫০ জন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিকে শনাক্ত করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘আপনি কি করতে পারবেন এবং কি করতে পারবেন না এ নিয়ে যদি আপনাদের কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে সাধারণ একটা নীতি প্রয়োগ করুন; ভাবুন আপনি কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত।’
লকডাউন চলাকালীন সকল অপ্রয়োজনীয় সেবা, পানশাল, রেস্তোরাঁ, ক্যাফে, ব্যায়ামাগার, সুইমিং পুল, জাদুঘর, লাইব্রেরি, খেলার মাঠসহ যেসব স্থানে জনসমাগম ঘটে তা বন্ধ থাকবে। এছাড়া সুপার মার্কেট, চিকিৎসক/হাসপাতাল, ঔষুধের দোকান, সার্ভিস স্টেশনসহ প্রয়োজনীয় ব্যাংকিং সেবা চালু থাকবে।
আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!