নীলফামারীতে ইউপি নির্বাচনে বন্ধের পঁয়তারায়, ফুঁসে উঠেছে ইটাখোলা বাসী

নীলফামারী প্রতিনিধি।।

২০০

৭ ফেব্রুয়ারি ইটাখোলা নির্বাচন বন্ধের পঁয়তারা করছে একটি বিশেষ মহল, সীমানা জটিলতার মলায় ১২ বছর ভোট আটকে রেখে কোটি কোটি টাকা লুটপাট করার অভিযোগ উঠেছে এই ইউনিয়ন থেকে। এছাড়া কবর স্থানের ৪২ লাখ টাকা আত্নসাতের একটি মামলা চলমান রয়েছে একটি আদালতে। এছাড়া সরকারী বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ না করে অথ আত্নসাতের অভিয়োগ তুলেছেন ভুক্তভোগী ইউপি সদস্য রা,

৪নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ সৈয়দ আলী বলেন, দীর্ঘ বছর ধরে ভোট না হওয়ায় আমরা কি বিপদের মধ্যে পড়ে আছি তা বলে বোঝানো যাবে না মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছি আমরা বৈধ প্রার্থী ২২ জানুয়ারি আমরা মার্কা পাব। এ সময় এই ধরনের ঘটনা এটা সকলের জন্য নিন্দার। এ ছাড়াও এই চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে কবর স্থান ও এতিমখানার ৪২ লাখ টাকা আত্নসাতের মামলা চলমান রয়েছে। এসব মামলা থেকে বাঁচতে নির্বাচন বন্ধের পঁয়তারা করছে চেয়ারম্যান।

এলাকা বাসীর অভিযোগ দীর্ঘ ১১ বছরে একটি রাস্তা, ব্রিজ নিমাণ হয়নি এই ইউনিয়নে।। ৭ ফেব্রুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে এই ইউনিয়নে। চেয়ারম্যান পদে ৬ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৯টি ওয়ডে ২৭ জন ও সদস্য পদে ৫২ জন প্রাথী প্রতিদন্দিতা করছে।

এবিষয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ হেদায়েত আলী শাহ ফকির বলেন, এক টি পক্ষ নির্বাচন সীমানা জটিলতার দোহাই দিয়ে হাইকোর্টে মামলা দিয়ে আটকে রেখে ১১ বছরে এতটাই দুনিতি করেছে য়ে নির্বাচনের কথা শুনলে ভয় পায়। অথচ সীমানা নিয়ে দন্দ নীলফামারী পৌরসভার নির্বাচন ঠিকই হল। , মহামান্য হাইকোর্ট থেকে আমরা ভোটার দের অধিকার ফিরিয়ে এনেছি, ৭ ফেব্রুয়ারিতে ইটাখোলা ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ভোটাররা এর উত্তর দেবে।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ আফতাব উজ্জামান জানান,সীমানা ও ভোটার সংক্রান্ত মতামত চাওয়া হয়েছিল আমরা পাঠিয়ে দিয়েছি মমন্ত্রনালয় এ মতামতের কারনে নির্বাচন বন্ধ হবার কথা না।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!