নড়াইলে সেনাবাহিনী প্রধানের শীতবস্ত্র বিতরণ, রেল প্রজেক্ট পরিদর্শন

নড়াইল প্রতিনিধি।।

২১১

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার মল্লিকপুর ইউনিয়নের করফা গ্রামে পৈতৃকভিটায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। প্রায় দুই হাজার গরীব ও দুস্থ মানুষের মাঝে করফা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন তিনি। এছাড়া করফা গ্রামে ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন।

মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে এসব কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেন তিনি। এরপর নড়াইলের কালনাঘাট এলাকায় নির্মাণাধীন রেল সেতুসহ মধুমতি আর্মিক্যাম্প পরিদর্শন করেন। এ সময় সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি যশোর এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মোঃ নূরুল আনোয়ার, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়ক এবং কনস্ট্রাকশন সুপারভিশন কনসালটেন্ট মেজর জেনারেল এফএম জাহিদ হোসেনসহ সেনাবাহিনীর বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা এবং জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সেনাপ্রধান বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কম্বল বিতরণের পাশাপাশি চিকিৎসা সেবা ও সহায়তা দিচ্ছে। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এগিয়ে যাচ্ছে।

রেল সেতু প্রকল্প সম্পর্কে সেনাপ্রধান বলেন, রেল প্রজেক্টটি সেনাবাহিনী দেখাশোনা করছে। গুণগতমান বজায় রেখে নির্ধারিত সময়ে কাজটি শেষ করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সেনাপ্রধান বলেন, ‘করফা গ্রাম আমার পৈত্রিক ভিটা। স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে এখানে আমি ছিলাম।’ তিনি বলেন, ‘সারাদেশে সেনাবাহিনীর শীতকালীন প্রশিক্ষণ চলছে। এ সময়ে আমরা জনগণের কাছাকাছি আসি। শীতবস্ত্র ও চিকিৎসাসামগ্রী বিতরণ করা হয়। তার অংশ হিসেবে এ কার্যক্রম।’

এদিকে, নড়াইলের করফা গ্রামের সন্তান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের আগমনে আনন্দিত নড়াইলবাসী। সেনাপ্রধানকে এক নজর দেখার জন্য ভিড় করেন গ্রামবাসীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ।

নড়াইলের করফা গ্রামের সন্তান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ২০২১ সালের ২৪ জুন তিন বছরের জন্য সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ পান। সেনাপ্রধান হওয়ার পর এই প্রথম নড়াইলে আসেন তিনি।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!