পাকিস্তানে করোনা ভাইরাসে প্রথম মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক।।

74
পাকিস্তানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
বার্তা রয়টার্স আরও জানায়, ইরান থেকে ফেরা ওই রোগীকে সংকটজনক অবস্থায় পাকিস্তানের হায়াটাবাদ মেডিকেল কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছিল। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ সংক্রান্ত তথ্য দেওয়ার জন্য এক ওয়েব পোর্টালে এ মৃত্যুর কথা ঘোষণা করেছে মন্ত্রণালয়।
কাতার প্রবাসীর ওই ব্যক্তির পরিবারের তাহিরী নামে ২৪ বছরের আরেকজনকে সন্দেহভাজন মনে হলে তাকেও এইচএমসিতে ভর্তি করা হয়েছিল। চিকিৎসকরা প্রকাশ করেছেন যে তাহির এখন স্থিতিশীল অবস্থায় আছেন।
দেশটিতে এ পর্যন্ত নতুন করে ৬৩ জনসহ মোট ২৪৭ জন ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন এবং এদের মধ্যে দুই জন রোগমুক্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পাকিস্তানি গণমাধ্যম দ্য ডন।
উল্লেখ্য, চীনে করোনা ভাইরাস প্রায় নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। কিন্তু চীনের বাইরে অন্যান্য দেশে ব্যাপক আকারে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। এতে বিশ্বব্যাপী প্রচণ্ড আতঙ্ক ও ভয়ের সৃষ্টি হয়েছে।
করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে ৮১৯ জনসহ মোট মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৯৮০ জনের। এর মধ্যে উৎপত্তিস্থল চীনে মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ২৩৭। চীনের বাইরে মারা গেছে ৪ হাজার ৭৪৩ জন।
এ ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে মোট আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৯৮ হাজার ৩৪৯ জন। এর মধ্যে ৮২ হাজার ৭৬৩ জন সুস্থ হয়েছে বাড়ি ফিরেছেন। চীনে আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৮৯৪। দেশটিতে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬৯ হাজার ৬১৪ জন। এছাড়া চীনের বাইরে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১৭ হাজার ৪৫৫ জন মানুষ।
বর্তমানে ১ লাখ ৭ হাজার ৬০৬ জন আক্রান্ত রোগী রয়েছেন। তাদের মধ্যে ১ লাখ ১ হাজার ১৯০ জনের অবস্থা সাধারণ (স্থিতিশীল অথবা উন্নতির দিকে) এবং বাকি ৬ হাজার ৪১৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আক্রান্তের অনুপাতে মৃত্যুর হার ৯ শতাংশ এবং সুস্থতার হার ৯১ শতাংশ।
এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান ড. টেড্রস আধানম গেব্রেইয়সুস অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন, সরকারগুলো এই বৈশ্বিক মহামারি ঠেকাতে যথেষ্ট পদক্ষেপ নিচ্ছে না। তিনি সরকারগুলোকে নিজ নিজ দেশের করোনাভাইরাস পরীক্ষার ব্যবস্থা আরও বাড়ানোর ওপর জোর দিয়েছেন।
চীনে উদ্ভূত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিনই বাড়ছে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৬৫টি দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।
আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!