পানি বাঁচাতে ১০ হাজার উট হত্যা; সেই অস্ট্রেলিয়ায় এখন প্রবল বন্যা!

অনলাইন ডেক্স।।

180
সম্প্রতি ভয়াবহ দাবানলের পর এবার আকস্মিক বন্যার কবলে পড়েছে অস্ট্রেলিয়ার। বিভিন্ন রাজ্যে প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে এই আকস্মিক বন্যা দেখা দিয়েছে। প্রবল বৃষ্টিতে দেশটির ভিক্টোরিয়া, নিউ সাউথ ওয়েলস এবং কুইন্সল্যান্ডে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।
এদিকে, ভিক্টোরিয়ার উপকূলে ফ্রেঞ্চ দ্বীপে দা’বা’ন’ল নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় সেখান থেকে নিরাপত্তার কারণে পর্যটক ও স্থানীয়দের চলে যেতে বলা হয়েছে।
রাজ্যগুলোর ফা’য়া’র সার্ভিস অফিস জানিয়েছে, বৃষ্টিপাতের কারণে দাবানল মোকাবেলায় সুবিধা হয়েছে। বৃষ্টি হওয়ায় দাবানল অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে এবং আবহাওয়া আগের তুলনায কিছুটা অনুকূলে আছে।
তবে প্রবল বর্ষণ ও ঝড়ের কারণে নিউ সাউথ ওয়েলসের বেশ কিছু এলাকায় বন্যার সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ভিক্টোরিয়া রাজ্যের আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শনিবার থেকে রাজ্যের কেন্দ্রীয় ও পূর্বাঞ্চলে ঝড়ের পূর্বাভাস ছিল।
স্থানীয় ফা’য়ার সার্ভিস জানিয়েছে, আ’গু’নে জ্বলতে থাকা বেশ কিছু এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে। তবে ভিক্টোরিয়া রাজ্যের দক্ষিণাঞ্চলের সীমান্তে বৃষ্টির দেখা মিলেনি। ফলে ওই এলাকাগুলোতে দাবানল এখনও আগের অবস্থায়ই রয়েছে।
তীব্র গরমে কয়েক মাস ধরে অস্ট্রেলিয়ায় ভয়াবহ দাবানল ছড়িয়ে পড়ে। এর মধ্যে বৃষ্টি হওয়ায় জনমনে স্বস্তি এসেছিল।
কিন্তু ভারী বর্ষণে কিছু এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় নতুন করে দুর্ভোগে পড়েছেন ওই অঞ্চলের মানুষ। সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে কুইন্সল্যান্ডে।
সেখানে কয়েকটি স্থানে পানি বেড়ে বেশ কিছু মহাসড়ক ও আবাসিক এলাকা তলিয়ে গেছে। নিউ সাউথ ওয়েলসের কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তবে ওইসব ঘটনায় কোনো হ’তাহ’তের খবর পাওয়া যায়নি।
এই রাজ্যগুলোতে ভারী বৃষ্টিপাতে বন্যার সৃষ্টি হলেও দেশটির দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল এখনও দাবানলের আ’গু’নে পুড়ছে। গত চার মাস ধরে চলমান দাবানলে প্রায় ৫০ কোটি প্রাণী মা’রা যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।
আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!