প্রতিবন্ধী রাজিবের পরিবারের পাশে তিতাস উপজেলা চেয়ারম্যান পারভেজ সরকার

হালিম সৈকত, কুমিল্লা

87
কুমিল্লার তিতাস উপজেলার মজিদপুর গ্রামে সাহাপাড়ায় মৃত নিরঞ্জন চন্দ্র সাহার ছোট ছেলে শারীরিক প্রতিবন্ধী রাজীব চন্দ্র সাহা(৩৫) সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন তিতাস উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ পারভেজ হোসেন সরকার।
জানা যায় প্রতিবন্ধী মানেই ভিক্ষাবৃত্তি গ্রহণ। তবে বর্তমানে চিত্রটা ভিন্ন। মানুষ এখন মর্যাদা নিয়ে বাঁচতে চায়। তেমনি ভিক্ষা না করেই জীবনকে জয় করতে চান রাজীব। তাই বাবার মৃত্যুর পর শারীরিক অক্ষমতা উপেক্ষা করে অন্যের দয়ার উপর নির্ভর না করে সিদ্ধ বুট বিক্রি করে দুই ছেলে, এক বোন, মা ও স্ত্রীকে নিয়ে ছয়জনের সংসার চালাচ্ছেন।
শুধু রাজিব নয় তাহার এক বোন ও এক ছেলে তার মতো প্রতিবন্ধী। তিনি উপজেলার মজিদপুর বাজারে অবস্থিত আয়েশা ব্রাইট ফিউচার স্কুল এন্ড কলেজের সামনে সিদ্ধ বুট বিক্রি করে কোন রকমে সংসার চালান। বিশেষ করে বিদ্যালয়ের ছেলে-মেয়েরাই তার প্রধান ক্রেতা। সম্প্রতি তার সাথে কথা বলে জানা যায়, তিনি জন্ম থেকে প্রতিবন্ধী এবং তার এক বোন ও এক ছেলেও জন্ম থেকে প্রতিবন্ধী। তাই তার বাবার মৃত্যুর পর প্রায় ১৫ বছর ধরে এই বুট বিক্রি করে সংসার চালাচ্ছেন। প্রতিদিন তার আয় হয় তিন চার শত টাকা।
এতে যা আয় হয় তাই দিয়ে এবং সরকারিভাবে প্রতিবন্ধী ভাতার টাকা দিয়ে দুই ছেলের লেখাপড়া ও সংসার চালাতে হয়। এ খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অনলাইন পোর্টাল এবং প্রিন্ট মিডিয়া প্রচারিত হওয়ায় উপজেলা চেয়ারম্যান এর দৃষ্টি গোচর হওয়ায় ঐ প্রতিবন্ধী পরিবারটিকে নগদ ৫০০০ ( পাঁচ) হাজার টাকা দেন।
জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের রোলমডেল হিসেব হতদরিদ্রদের গৃহহীনদের অর্থায়নে একটি ঘর নির্মাণ,এবং সমাজ সেবা অর্থায়নে ব্যবসায়িক ঋণ দেওয়ার প্রক্রিয়াধীন এবং ঐ পরিবারের একটি প্রতিবন্ধীর কার্ড করার জন্য সমাজ সেবা কর্মকর্তা মোঃ আলামিন কে নির্দেশ দেন উপজেলা চেয়ারম্যান।
প্রতিবন্ধী পরিবারের প্রধান রাজিব সাহা নগদ অর্থ এবং ঘর নির্মাণ, ব্যবসা করার আশ্বাস পেয়ে আনন্দে অশ্রু ভরা কন্ঠে কান্না কান্না অবস্থায় চেয়ারম্যান সাহেবকে জড়িয়ে ধরেন।
মোঃ পারভেজ হোসেন সরকার প্রতিবন্ধী পরিবারকে প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, আপনাদের যে কোন সমস্যায় আমাকে জানাবেন আমি সব সময় আপনাদের পাশে থাকার চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন তিতাস উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শওকত আলী।
আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!