বরিশালে ট্রলারডুবিতে নানি-নাতি নিখোঁজ

58

অনলাইন ডেস্ক।। বরিশালের হিজলা উপজেলার মেঘনার শাখা শেওরা নদীতে ট্রলারডুবির ২০ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নানি ও নাতির খোঁজ মেলেনি। তাদের সন্ধানে নদীতে তল্লাশি চালিয়ে যাচ্ছেন নৌ-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

বুধবার (০১ জুলাই) রাত ৮টার দিকে উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের নাছোকাঠি সংলগ্ন মেঘনার শাখা শেওরা নদীতে ট্রলারডুবির এ ঘটনায় নানি-নাতি নিখোঁজ হন। নিখোঁজ শাহিদা বেগম (৫০) হিজলা-গৌরবদী ইউনিয়নের বিষকাঠালী গ্রামের মোতালেব বেপারীর স্ত্রী ও সাইমুন (৪) একই এলাকার মো. আল আমিনের ছেলে। সম্পর্কে তারা নানি-নাতি।

হিজলা নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বেল্লাল হোসেন বলেন, ট্রলারের মাঝি মোতালেব বেপারীর পরিবার ও স্বজনদের ১১ জনকে নিয়ে হিজলার হরিণাথপুর ইউনিয়নের নাছোকাঠী গ্রামের হাটে এসেছিলেন। বাজার করে রাত সাড়ে ৭টার দিকে তারা ট্রলারে করে বিষকাঠালী গ্রামে ফিরছিলেন। শেওরা নদী পাড়ি দেয়ার সময় হঠাৎ দমকা হাওয়া ও প্রচণ্ড ঢেউয়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। নয়জন সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও শাহিদা বেগম ও তার নাতি সাইমুন নিখোঁজ হন।

বেল্লাল হোসেন আরও বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ট্রলারডুবির ঘটনা জানতে পারি আমরা। বেলা ১১টার দিকে নৌ-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করেন। মেঘনার ওই শাখা নদী খরস্রোতা হওয়ায় উদ্ধার কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত নিখোঁজ দুইজনকে পাওয়া যায়নি। উদ্ধারকাজ চলছে।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!