বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ শেষে হিলি সীমান্ত দিয়ে দেশে ফিরে গেলেন ৩ভারতীয় নাগরিক

৩৩

দেশের বিভিন্ন সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধপথে ভারত থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের দায়ে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে আটক হয়ে বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ শেষে নিজ দেশে ফিরে গেলেন নারী ওপুরুষসহ ভারতীয় তিন নাগরিক।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় হিলি সীমান্তের চেকপোষ্ট গেটের শুন্যরেখা দিয়ে বিজিবি ও বিএসএফের উপস্থিতিতে হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টের ওসি সেকেন্দার আলী ভারতের হিলি অভিবাসন পুলিশের ওসি শিপ্রা রায়ের হাতে তাদেরকে তুলে দেন।

দেশে ফেরত যাওয়া ভারতীয় তিন নাগরিকরা হলেন ভারতের গুজরাতের আহমেদাবা জেলার রামল থানার ভিনোভাভাবি নগর গ্রামের লালতা শিং এর ছেলে রাজপুত চন্দ্রপাল শিং (৪৬), ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাকুরা জেলার দমদম গ্রামের শেখর রায়ের মেয়ে ঐশি রায় (২২), দক্ষিন দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর থানার দাইনুর তেলিপাড়া গ্রামের মনসুর আলীর স্ত্রী গুলসান বিবি (৪২)।

রাজপুত চন্দ্রপাল লালমনিরহাটের চিলাহাটি সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধপথে ভারত থেকে বাংলাদেশে ঘুরতে গিয়ে সীমান্ত রক্ষি বাহিনী বিজিব তাকে আটক করে, সে ১৪বছর ধরে নীলফামারী ও দিনাজপুর কারাগারে আটক ছিলেন, ঐশি রায় তার মামার সাথে বিমানযোগে ঢাকা এয়ারপোর্টে নামলে তার মামা তার পাসপোর্ট নিয়ে পালিয়ে গেলে সেখানে সে আটক হয়ে ৩বছর ধরে কারাগারে আটক ছিলেন, গুলশান বিবি জয়পুরহাটের কয়া সীমান্ত এলাকা দিয়ে তার বোনকে সীমান্ত পার করে দিতে এসে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে বিজিবির হাতে আটক হয়ে ১১মাস ধরে কারাগারে আটক ছিলেন বলে জানান তারা।

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট ওসি সেকেন্দার আলী বলেন, ভারতীয় ৩জন নাগরিক অবৈধভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করলে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে আটক হয়ে ৩মাস ৪মাস ও ৫মাস মেয়াদে তাদের কারাদন্ড দেয় আদালত। পরে তারা দেশের বিভিন্ন কারাগারে তাদের কারাভোগ শেষ করেন। সাজার মেয়াদ শেষ হলেও তারা কারাগারে আটক থাকায় দুদেশের উচ্চ পর্যায়ে চিঠি আদান প্রদানের মাধ্যমে তাদের মুক্তির নির্দেশনা পেলে বিজিবি ও বিএসএফের উপস্থিতিতে আজ তাদেরকে ভারতীয় হিলি ইমিগ্রেশন পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়। তারা তাদের নিজ বাড়িতে ও নিজ অভিভাবকের নিকট চলে গেছেন।

জেনিফার_______৭ সেপ্টেম্বর ২১

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!