ব্যারিষ্টারি পড়তে গিয়ে লাশ হয়ে দেশে ফিরলেন পঞ্চগড়ের ফায়াদ

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি।।

৯০

গত ১২ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যের ব্রিস্টল শহরে একটি বাড়িতে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন হন পঞ্চগড়ের সন্তান ফাহাদ হোসেন প্রামাণিক (২৭)। স্বপ্ন ছিলো উচ্চ শিক্ষিত হয়ে মা-বাবার স্বপ্ন পূরণ করবে, হবে ব্যারিস্টার। তবে ব্যারিস্টারি পড়া শেষ না হতেই দুর্বৃত্তের হামলায় পরকালে পারি দিতে হলো ফাহাদকে। নিহতের দীর্ঘ একমাস পর সকল আইনি প্রক্রিয়া শেষ ফাহাদের নিথর সেই দেহ দেশে এনে নিজ গ্রামের বাড়ি পঞ্চগড়ে চিরসাহিত হয়েছেন।

ফাহাদ পঞ্চগড় শহরের উত্তর জালাসী এলাকার ব্যবসায়ী নাজমুল হক প্রামাণিকের ছেলে। গত সোমবার (১১ অক্টোবর) রাতে হত্যাকাণ্ডের এক মাস পর তাঁর লাশ পৌঁছায় বাড়িতে। এদিকে খালি হয়ে গেছে আশায় বুক বাঁধা মা–বাবার কোল। ফাহাদের লাশ আসবে বলে সন্ধ্যা থেকেই পাড়া–প্রতিবেশী ও স্বজনেরা ভিড় করছিলেন তাঁদের বাড়িতে। এদিকে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সকালে পঞ্চগড় শহরের দারুল উলুম মাদ্রাসা মাঠে ফাহাদের দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বেলা ১২টায় সদর উপজেলার চাকলা হাট ইউনিয়নের নেকিপাড়া এলাকায় তৃতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়।

ফাহাদের পরিবারের সদস্যরা বলেন, গত ১২ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যের ব্রিস্টল শহরে একটি বাড়িতে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে খুন হন ফাহাদ। পরদিন পুলিশ ওই বাড়ির একটি কক্ষ থেকে ফাহাদসহ দুজনকে উদ্ধার করে। ১৫ সেপ্টেম্বর পঞ্চগড় জেলা প্রশাসন ও পুলিশের মাধ্যমে ফাহাদের খুন হওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে পুলিশ ইতিমধ্যে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। ফাহাদ পঞ্চগড় বিষ্ণু প্রসাদ (বিপি) সরকারি উচ্চবিদ্যালয় থেকে ২০০৯ সালে এসএসসি পাস করেন ফাহাদ। এরপর ঢাকার ভূঁইয়া একাডেমি থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন। উচ্চশিক্ষা অর্জন করে ভালো আইনজীবী হওয়ার স্বপ্ন ছিল তাঁর। পরে ব্যারিস্টার অ্যাট ল ডিগ্রি নিতে ২০১৮ সালে যুক্তরাজ্যে চলে যান ফাহাদ।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ৮ অক্টোবর যুক্তরাজ্যের ব্রিকলেন জামে মসজিদে ফাহাদের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে লাশটি বাংলাদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করে বাংলাদেশ হাইকমিশন।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!