ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, হাসপাতালে ভর্তি

অনলাইন ডেস্ক।।

20
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলায় ৯ বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলার সোনারাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। রাতে শিশুটিকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এ ঘটনায় অভিযুক্ত লিটন মিয়াকে (২৮) আটক করেছে পুলিশ। তিনি কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রাম উপজেলার মৃত ঈমান আলীর ছেলে।
ওই শিশুটির পরিবার আশুগঞ্জের সোনারামপুর এলাকার একটি চাতালকলে কাজ করে। তাদের বাড়ি কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলার নীলক্ষ্মী আফানিয়া গ্রামে।
শিশুটির পরিবার জানায়, বিকেলে চাতালকলের পাশে শিশুটি খেলা করছিল। এ সময় লিটন প্রলোভন দেখিয়ে চাতালকলের পাশে একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এরপর সন্ধ্যায় শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে আশুগঞ্জ থানায় নিয়ে যান পরিবারের লোকজন।
আশুগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শিশুটিকে থানায় আনার পর রক্তপাত থেকে আমরা দ্রুত তাকে সদর হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি। পুলিশের কাছে আটক নিজের রিকশা ছাড়ানোর জন্য লিটনও তখন থানায় ছিলেন। ওই শিশুটি লিটনকে দেখে আমাদের বললে আমরা তাকে আটক করি।
জেলা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, শিশুটির প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে। গাইনি কনসালটেন্টের তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছে।
আরো পড়ুনঃ