ভালোবাসার নজির স্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্রে জাপানের সাবেক রাজকুমারী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

৫২

যার জন্য রাজত্ব ত্যাগ করলেন এবার তার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমালেন। একজন সাধারণ ঘরেরে ছেলেকে বিয়ে করে রাজকীয় মর্যাদা ত্যাগ করেন তিনি। যা করেছেন তা তার ভালোবাসার মানুষকে কাছে পাওয়ার জন্যই করেছেন। তবে এমন ঘটনার জন্য তিনি নিজ দেশে হয়েছেন বেশ আলোচিত ও সমালোচিত। বলছি জাপানের সাবেক রাজকুমারীর কথা। আর যাকে ভালোবেসে বিবাহ করেছেন তার নাম কেই কোমুরো। তাদরে দুইজনের বয়সই ৩০ বছর।

জাপানের সাবেক রাজকুমারী মাকো ও তার স্বামী কেই কোমুরো যখন টোকিওর হানেদা বিমানবন্দর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন তখন জাপানের গণমাধ্যমগুলো সরাসরি সম্প্রচার করেন। রোববার (১৪ নভেম্বর) এবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ফোর্ডহ্যাম ইউনিভার্সিটির ল স্কুল থেকে স্নাতক করা কোমুরো বর্তমানে নিউ ইয়র্কের একটি আইন সংস্থায় চাকরি করছেন। তবে তিনি এখনো তার বারের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেননি।

টোকিওতে তাদের বিবাহের পর কোমুরো সাংবাদিকদের বলেন, আমি মাকোকে ভালোবাসি। বড় কোনো অনুষ্ঠান ছাড়া খুব সাদামাটাভাবে তারা বিবাহের আয়োজন করেন। যাকে আমি ভালোবাসি তার সঙ্গেই থাকতে চাই বলেও জানান কোমুরো।

জাপানের আইন অনুযায়ী, রাজপরিবারের কোনো নারী সদস্য যদি বাইরের কোনো সাধারণ পুরুষকে বিবাহ করেন তাহলে তিনি রাজকীয় মর্যাদা হারান। তবে পুরুষ সদস্যের ক্ষেত্রে এ নিয়ম প্রযোজ্য নয়।

তবে জাপানে রাজপরিবারে এমন ঘটনা নতুন নয়। এর আগেও সাধারণ পরিবারে ছেলেকে ভালোবেসে বিয়ে করে রাজকীয় মর্যাদা ত্যাগ করেন অনেক রাজকুমারী। তবে সেসময় এত সমালোচনা বা আলোচনা হয়নি। ঠিক যেভাবে হয়েছে মাকোর ক্ষেত্রে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও জাপানের স্থানীয় গণমাধ্যমে এ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

মাকো ও কোমুরোর প্রথম দেখা ২০১২ সালে। সে সময় তারা টোকিওতে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিশ্চিয়ান ইউনিভার্সিটিতে পড়তেন। একসঙ্গে পড়াশোনার সুবাদে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ২০১৭ সালে তাদের বাগদান হয়। চলতি বছরের ২৬ অক্টোবর অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তারা।

 

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!