ভুল করছেন না তো? ডায়াবেটিস মাপতে গিয়ে

অনলাইন ডেস্ক।।

১৪০

রক্তের গ্লোকোজের মাত্রা অনিয়ন্ত্রিতভাবে বেড়ে যাওয়াকে ডায়াবেটিস বলা হয়। ডায়াবেটিস সাধারণত দুই ধরনের- টাইপ ১ ও টাইপ ২। এ ছাড়াও নারীর গর্ভকালীন সময়ে এক ধরনের ডায়াবেটিস হয়, যাকে বলা হয় জেস্টেশনাল ডায়াবেটিস।

আপনি জানলে অবাক হবেন,ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীর নিয়মিত রক্তের গ্লুকোজ পরীক্ষা করা জরুরি। কারণ রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা অনুযায়ীই খাবার ও জীবনধারা পাল্টাতে হয়। তবে ডায়াবেটিস বা রক্তের গ্লুকোজ পরীক্ষার সঠিক নিয়ম অনেকেরই অজানা। অনেকেই ঘরে ডায়াবেটিস মাপতে গিয়ে ভুল করেন। জেনে নিন রক্তের গ্লুকোজ পরিমাপের সময় সাধারণত যেসব ভুল করা হয়- পুরোনো টেস্ট স্ট্রিপ ব্যবহার করা

অনেকেই স্ট্রিপের মেয়াদ আছে কিনা সেটি পরীক্ষা না করেই ব্যবহার করেন। সবচেয়ে বেশি করা ভুলগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো পুরোনো টেস্ট স্ট্রিপ ব্যবহার করা। সাধারণত গ্লুকোমিটারের সঙ্গে সঙ্গে ছোট্ট একটি স্ট্রিপ দেওয়া থাকে। এর সাহায্যে রক্তের গ্লুকোজ পরিমাপ করা হয়।

ফলে রক্তের গ্লুকোজের পরিমাণ সঠিকভাবে নির্ণয় করা সম্ভব হয় না। এ ধরনের ভুল পরিমাপ ডেকে আনতে পারে অনেক বড় ধরনের বিপদ। তাই আমাদের উচিত স্ট্রিপের মেয়াদ আছে কিনা সেটা দেখে এরপর গ্লুকোজ পরিমাপের কাজে ব্যবহার করা।

বিশেষজ্ঞদের মতে, খাবার গ্রহণের ২ ঘণ্টা পর ডায়াবেটিস টেস্ট করানো উচিত। ভুল সময় টেস্ট করা- খাওয়ার অনেক আগে অথবা দীর্ঘক্ষণ পর ডায়াবেটিস টেস্ট করা ঠিক নয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় খাবার পরপরই অনেকেই ডায়াবেটিস টেস্ট করান। তবে এটি সঠিক পদ্ধতি নয়।

অনিয়মিত টেস্ট করা- সঠিক খাদ্যাভ্যাস ও নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনের অভ্যাস গড়ে তোলা সম্ভব।একদিন মাপার পর আবার ৩ দিন ভুলে যাওয়ার অভ্যাস অনেকেরই আছে। আবার একদিন সকাল ৮টায় মাপা হলো আবার অন্যদিন সন্ধ্যা ৭টায়। এভাবে অনিয়ম করলে কখনো ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আনতে পারবেন না। তাই আমাদের উচিত প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে ডায়াবেটিস মাপা।

নোংরা হাতে স্ট্রিপ ধরা- অনেকেই নোংরা হাতে স্ট্রিপ ধরেন। ফলে গ্লুকোমিটারে স্ট্রিপ থেকে সঠিক ফলাফল যাচাই করা সম্ভব হয় না। এজন্য ডায়াবেটিস টেস্ট স্ট্রিপ ধরার পূর্বে অবশ্যই ভালোভাবে হাত পরিষ্কার করে নেওয়া উচিত।

সঠিক টেস্টিং কিট ব্যবহার না করা- বাজারে বিভিন্ন ধরনের ডায়াবেটিস টেস্টিং কিট পাওয়া যায়। এগুলো ডায়াবেটিসের ধরনের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন ধরনের ডায়াবেটিক ব্যক্তিদের রক্তের গ্লুকোজ পরিমাপ করতে ব্যবহৃত হয়। তাই সঠিক ফলাপল জানতে টেস্ট কিট কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই রোগীর অবস্থা বুঝে নির্বাচন করুন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রক্তের গ্লুকোজ নিয়মিত পরিমাপ করা খুবই জরুরি। সুতরাং আমাদের সবার উচিত রক্তের গ্লুকোজ পরিমাপের সময় উপরোক্ত ভুলগুলো এড়িয়ে চলার চেষ্টা করা।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!