মামার বাড়ীত বেড়াতে এসে কিশোরীর সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত; হাতনাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ

শাহাদাত হোসেন।।

296

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে দিকচান্দা গ্রামের সৌদি প্রবাসী ওমর ফারুকের ভাগিনা আল-মামুন মামার বাড়িতে বেড়াইতে এসে পাশ্ববর্তী এলাকার দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ডেকে এনে তার সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত অবস্থায় এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়ে। শনিবার সকাল দশটায় এ ঘটনাটি ধরা পড়ে। শনিবার দিনব্যাপী চেষ্টা চালিয়েও ঘটনাটি সমাধান করতে না পেরে এলাকাবাসী থানা পুলিশের কাছে ছেলে-মেয়েকে হস্তান্তর করে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, মনোহরগঞ্জ উপজেলার দিকচান্দা গ্রামের মাস্টার আবদুল গনির পুত্র নীলকান্ত ডিগ্রী কলেজের বিএসএস (পাস) কোর্সের ছাত্র আল-মামুন ঈদ উপলক্ষ্যে একই গ্রামের মামা সৌদি প্রবাসী ওমর ফারুকের বাড়িতে বেড়াইতে আসে। মামার পরিবারের লোকজন সাংসারিক কাজ-কর্মে ব্যস্ত থাকার সুযোগে আল-মামুন পার্শ্ববর্তী এলাকার দশম শ্রেনীতে পড়ুয়া ওই ছাত্রীকে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে ঘরের কক্ষের দরজা বন্ধ করে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়ে পড়ে।

বিষয়টি আঁচ করতে পেরে কয়েকজন যুবক স্থানীয় ইউপি সদস্য (মেম্বার) আবদুর রহিমকে অবগত করলে, মেম্বার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওমর ফারুকের মা এবং বউকে সাথে নিয়ে কক্ষের দরজা খোলে ভাগিনা আল-মামুন ও ওই ছাত্রীকে অনৈতিক কাজে লিপ্ত অবস্থায় ধরে পেলেন। মুহূর্তেই এ ঘটনাটি এলাকার সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ঘটনার স্থলে ভিড় জমায়। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সাথে সাথে মনোহরগঞ্জ থানা পুলিশকে ঘটনাটি অবগত করেন। পরে এলাকাবাসী এবং উভয় পক্ষের অভিভাবকগণসহ স্থানীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে মনোহরগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে তাদের সোপর্দ করেন।

এ বিষয়ে মনোহরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেজবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া জানান, ঘটনাটি সম্পর্কে আমাকে জানানো হয়েছে। আমি আমাদের ওসি (তদন্ত) মাহবুবুল কবিরের নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি এবং সঠিক তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!