মালিকের মৃত্যুশোক সইতে না পেরে কুকুরের আত্মহত্যা!

76

অনলাইন ডেস্ক।। প্রায় ১৩ বছর আগে ভারতের কানপুরের এক হাসপাতালের বাইরে কাঁদছিল একটি কুকুর ছানা। আশেপাশে ছিল অনেক লোক। তবে কেউ বুঝতে পারেনি কুকুর ছানাটির যন্ত্রণা।

হঠাৎ কুকুর ছানাটিকে দেখতে পান ডাক্তার অনিতা রাজ। ছানাটির তখন মরণাপন্ন অবস্থা। গায়ে পোকা হয়েছে। অনিতা সেই কুকুর ছানাটিকে নিজের বাড়িতে নিয়ে এসেছিলেন।

দিন কয়েক চিকিৎসার পর কুকুর ছানাটি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠে। ডাক্তার অনিতা রাজ ও তাঁর বাড়ির লোক কুকুরটির মায়ায় পড়ে যান। সেই থেকে ওই কুকুর ছানা ডাক্তার অনিতা রাজের বাড়ির সদস্য হয়েই ছিল।

ডাক্তার অনিতা রাজ ভালবেসে ওর নাম রেখেছিলেন জয়া। কানপুরের মালিকপুরাম এলাকায় স্বাস্থ্য বিভাগের জয়েন্ট ডিরেক্টর ছিলেন ডাক্তার অনিতা রাজ। কয়েক মাস ধরে তিনি কিডনির অসুখে ভুগছিলেন। দিন সাতেক আগে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় তাঁকে। কিন্তু বাঁচানো যায়নি। আনিতা রাজের মৃতদেহ বাড়িতে আনার পরই কষ্টে ছটফট করতে থাকে জয়া। কয়েক মিনিট পর বাড়ির চার তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

এই ঘটনায় স্তম্ভিত এলাকাবাসী। ডাক্তার অনিতা রাজ সারাদিন কাজের পর বাড়ি ফিরলে জয়া সারা বাড়িতে ছোটাছুটি করে আনন্দ করত। গত ১৩ বছরে মনিবকে ছেড়ে একদিনও থাকেনি জয়া। সেই প্রিয় মনিবের এভাবে চলে যাওয়া সে মেনে নিতে পারেনি সে।

সূত্র: জি২৪ বাংলা

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!