লাকসামে নিখোঁজের ৩ দিন পর ডোবা থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার

লাকসাম প্রতিনিধি।।

165

লাকসামে নিখোঁজের ৩ দিন পর নানার বাড়ির পাশের ডোবা থেকে আজাদ আহমেদ মুন্না (১৩) নামের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকাল ১০টায় পৌর শহরের গন্ডামারা এলাকা থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃত মুন্না সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলার বড়হরি গ্রামের মঞ্জিল মিয়ার ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে মায়ের সাথে লাকসাম পৌর শহরের গন্ডামারা গ্রামে নানার বাড়িতে বসবাস করছে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, গত ২৪ নভেম্বর বিকেলে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় আজাদ আহমেদ মুন্না। আত্মীয়-স্বজনের বাড়িসহ আশপাশের এলাকায় খোঁজাখুঁজি করে তার সন্ধান না পেয়ে লাকসাম থানায় নিখোঁজ ডায়েরী করে মা মনোয়ারা বেগম। শুক্রবার সকালে নানার বাড়ির পাশের ডোবায় মুন্নার ভাসমান মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে তাৎক্ষণিক লাকসাম থানা পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। শিশু মুন্নার রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিক মরদেহটি উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। রিপোর্ট এলে জানা যাবে এটি হত্যাকান্ড নাকি দুর্ঘটনা। হত্যাকান্ড হলে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!