শশার উপকারীতা

81

অনলাইন ডেস্ক।। বারোমাসি সবিজির মধ্যে শশা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সবজি। শশা রান্না ছাড়াই সালাদ হিসেবে বা এমনিই খাওয়া যায়। এই শশার ভেষজ গুণের শেষ নেই। শশা ত্বকের যত্নে ব্যবহার করে থাকেন সৌন্দর্য পিপাসু নারী-পুরুষেরা। এছাড়া পরিপাকতন্ত্র সুস্থ রাখতে এবং শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে শশার বিকল্প নেই। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক শশার গুণাগুণ।

উচ্চ রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রণে:

ভিটামিন সি, সিলিকা, পটাশিয়াম, ম্যাগনোশিয়াম ও উচ্চ রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে শশা। তাছাড়া শশায় রয়েছে স্টেরল নামের একধরণের উপাদান যা কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। স্টেরল মুটিয়ে যাওয়া রোধ করতেও সাহায্য করে।

শরীর ঠাণ্ডা রাখতে:

ফাইবার ও ফ্লুইডে সমৃদ্ধ শশা শরীরে ফাইবার ও ওয়াটার ইনটেক বাড়াতে সাহায্য করে। গরমের দিনে শশার রসের সাথে সেলেরিরি জুস মিশিয়ে খেতে পারেন। এটা শরীরের তাপমাত্রা নরমাল রাখতে সাহায্য করবে।

ত্বকের সুস্থতায়:

ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্যও শশা খুব ভাল কাজ করে। ত্বক পরিষ্কার রাখতে শশার স্লাইস, জুস প্রভৃতি বেশ কাজে দেয়। শশায় উপস্থিত সিলিকা মালস, কার্টিলেজ, লিগামেন্টের কানেকটিভ টিস্যু গড়ে ওঠে। খনিজ উপাদান সমৃদ্ধ শশা নখ, দাঁত ও মাড়ির জন্য বেশ উপকারী।

অ্যাসিডিটি নিয়ন্ত্রণে:

হজম ও কনস্টিপেশনের সমস্যার সমাধানে ডায়েটে শশা রাখতে পারেন। কারণ শশাতে আছে এরেপসিন নামের আনজাইম। আলসার গ্যাস্ট্রাইটিস, অ্যাসিডিটির ক্ষেত্রেও তাজা শশার রস উপকারী। শরীরের পিএইচ সমতা বজায় রাখে শশা। সুস্থ থাকে বৃক্ক(কিডনি), ইউরিনারি ব্লাডার, লিভার ও প্যানক্রিয়াসের

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!