সোনাহাটের ভূমিদস্যু ও চাঁদাবাজ মিজু গ্রেফতার

46

অনলাইন ডেস্ক।। কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় অবস্থিত সোনাহাট স্থলবন্দর এলাকার কুখ্যাত চাঁদাবাজ ও ভূমিদস্যু মিজানুর রহমান মিজুকে (৪৬) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (৫ জুন) ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে জেলা সদর লাগোয়া আরাজী পলাশবাড়ী গ্রামের এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

মিজানুর রহমান মিজু দীর্ঘ দিন থেকে পলাতক ছিলেন। তিনি উপজেলার বঙ্গ সোনাহাট ইউনিয়নের বানুরকুটি গ্রামের আলিম উদ্দিনের ছেলে।

এদিকে মিজুকে গ্রেফতারের পর শুক্রবার দুপুরের দিকে ভূরুঙ্গামারী থানায় আনা হয়। শনিবার (৬ জুন) তাকে আদালতে সোপর্দ করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. আতিয়ার রহমান।

ওসি জানান, ভূরুঙ্গামারী থেকে সোনাহাট স্থলবন্দর পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার সড়কের সম্প্রসারণ কাজে বালু সরবরাহ করছেন একই ইউনিয়নের গনাইরকুটি গ্রামের সুরতান মোল্লা। এ অবস্থায় গত ১৭ মে মিজানুর রহমান মিজু, রঞ্জু মিয়া ও রিপন মিয়াসহ তাদের লোকজন সুলতান মোল্লার কাছে মোটা অঙ্কের টাকা চাঁদা দাবি করেন। এ সময় চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে সুলতান ও তার লোকজনকে মারপিট করে মিজু গং।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুলতান মোল্লা বাদী হয়ে মিজানুর রহমান মিজুসহ ১৮ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

ওসি আরও জানান, মিজুর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও ভূমিদস্যুতার অনেক অভিযোগ রয়েছে। সুলতান মোল্লার দায়ের করা মামলা ছাড়াও মিজুর বিরুদ্ধে ২০১৩ সালে দায়ের করা একটি জিআর ও দুটি সিআর এবং ২০১৭ সালে একটি ও ২০১৮ সালের একটি জিআর মামলা বিচারাধীন আছে।

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!