সৌদি আরবে বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক।।

46
সৌদি আরবের তায়েফে এক প্রবাসী বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। খুন হওয়া ব্যক্তির নাম মোবারক হোসেন (২৮)। তিনি সৌদি আরবের তাইফ প্রদেশে পানির গাড়ি চালাতেন।
গত বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) রাত অনুমানিক আড়াইটারদিকে তায়েক শহর থেকে প্রায় ২০০ কিলোমিটার দূরে আল খোরমা নামক সিটিতে পানির গাড়ি আটকিয়ে মোবারক হোসেনকে নির্মমভাবে মাথায় গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেদ্দা ।
তাইফ প্রবাসী নজরুল ইসলাম জানান, ‘ঘটনার দিন রাতে মোবারক হোসেন একাই পানির গাড়ি নিয়ে নির্দিষ্ট স্থানের পানির কুয়ো থেকে পানি ভরে আনতে যাচ্ছিলেন। তাইফ শহর থেকে কুয়োতে যাবার পথটি ছিল জনমানবহীন ও মরুভূমির রাস্তা। তখন গভীর রাতে শুনসান নামক মরুর পথে ২ জন সৌদি নাগরিক মোবারক হোসেনের গাড়ির পথরোধ করে। তার সঙ্গে থাকা মানিব্যাগ, মোবাইল, জোরপূর্বক ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। এসময় ছিনতাইকারীদের সঙ্গে মোবারক হোসেনের ধস্তাধস্তি ও একপর্যয়ে হাতাহাতি হয়। দুর্বৃত্তরা তাকে মারধর করে। তারপরও, মানিব্যাগ দিতে অস্বীকার করলে এক পর্যায়ে মোবারক হোসেনের মাথায় গুলি করে ছিনতাইকারীরা। মোবারক হোসেন গাড়ি থেকে ওখানেই লুটিয়ে পড়ে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে সৌদি পুলিশ।’
পরদিন সকাল সাড়ে ৬টার দিকে সৌদির স্থানীয় পুলিশ মোবারক হোসেনের লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ তার সৌদি মালিক কপিলের সঙ্গে যোগাযোগ করে খুন হওয়া কথা জানান।
নিহত মোবারেক হোসেন নরসিংদী জেলার সদর উপজেলাধীন ৩নং পানির ট্যাংক এলাকার ব্রাহ্মণপাড়ার আবদুল খালেকের ছেলে।
নিহত মোবারক হোসেনের মামা জামির হোসেন জানান, ‘পরিবারের কথা চিন্তা করে জীবন ও জীবিকার তাগিতে ২ বছর আগে সৌদি আরবের তায়েফে পাড়ি জমান মোবারক হোসেন। কিন্তু এইভাবে তাকে হারাতে হবে কল্পনাও করতে পারিনি।’
নিহত মোবারক হোসেনের লাশ বর্তমানে সৌদি আরবের খোরমা সেন্টার হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।
আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!