হজ ফ্লাইটে যাত্রীসীমা ৩০০ জন, সৌদির নির্দেশনায় বিপাকে বিমান

76
হজ ফ্লাইটে তিনশর বেশি যাত্রী পরিবহন করা যাবে না সৌদি সরকারের এমন নির্দেশনার কারণে বিপাকে পড়তে পারে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। বিমান কর্তৃপক্ষ বলছে, এ নির্দেশনা কার্যকর হলে প্রতি ফ্লাইটে অন্তত একশ আসন খালি যাবে তাদের। জটিলতা সমাধানে সৌদি সরকারের সঙ্গে আলোচনার কথা জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।
চাঁদ দেখা সাপেক্ষে এ বছর হজ হতে পারে ১০ আগস্ট। এবার হজে যেতে নিবন্ধন করেছেন এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ বাংলাদেশি। সৌদি আরবের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী মোট যাত্রীর অর্ধেক অর্থাৎ ৬৩ হাজার পাঁচশ ৯৯ যাত্রী বহন করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।
হজ যাত্রী পরিবহনে বরাবরের মতোই বিমান ব্যবহার করছে নিজস্ব বহরের বোয়িং ট্রিপল সেভেন উড়োজাহাজ। এর প্রতিটির আসন সংখ্যা ৪১৯। তবে সৌদি সরকারের নতুন নিয়মে ডেডিকেটেড ফ্লাইটে সর্বোচ্চ তিনটি হোটেলের যাত্রী পরিবহন করা যাবে। এতে প্রতি ফ্লাইটে ৩০০-এর বেশি যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।
তবে ক্যাপাসিটি লস ঠেকাতে সৌদি সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন ধর্মমন্ত্রী।
এ বছর হজ ফ্লাইট শুরু হচ্ছে ৪ জুলাই। যাত্রী পরিবহনে ১৫৭টি নির্ধারিত ও ৩২টি নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান। এর মধ্যে, চট্টগ্রাম থেকে ১৭টি ও সিলেট থেকে ৩টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।
আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!