হালুয়াঘাটে দুই গারো কিশোরী ধর্ষণ প্রধান আসামি রিয়াদসহ গ্রেফতার ৬

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি।।

১০৩

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে গারো সম্প্রদায়ের দুই ছাত্রীকে গণধর্ষণের মামলার ছয় আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ময়মনসিংহ গোয়েন্দা পুলিশ ও র‌্যাব-১৪ ময়মনসিংহ অভিযান চালিয়ে শুক্রবার রাতে তাদের গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো-মামলার প্রধান আসামি গাজীরভিটা ইউনিয়নের প্রাক্তন ইউপি সদস্য আবদুল মান্নানের ছেলে সোলায়মান হোসেন রিয়াদ(২২), কাতলমারি গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে শরীফ মিয়া (২০), কাটাবাড়ি গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে মিজানুর রহমান (২২), একই গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে আব্দুল হামিদ (১৯), কচুয়াকুড়া গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে মিয়া হোসেন (২০) একই গ্রামের মফিজুল মিয়ার ছেলে রুকন মিয়া (২১)।

গত ২৭ ডিসেম্বর রাতের দুই ছাত্রীর সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনার পর ধর্ষণের শিকার এক স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

পরে শুক্রবার রাতে র‌্যাব-১৪ এর একটি দল ময়মনসিংহের গফরগাঁও থেকে প্রধান আসামি রিয়াদকে গ্রেফতার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১৪ এর মিডিয়া অফিসার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: হান্নানুল ইসলাম।

এদিকে, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি সফিকুল ইসলাম জানান, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের দুটি চৌকস টিম নানা তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শুক্রবার রাতে গাজীপুর ও ময়মনসিংহের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে দুই গারো ছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৭ ডিসেম্বর রাতে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার গাজীরভিটা ইউনিয়নের একটি গ্রামে বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন দুই স্কুলছাত্রী। পরে ২৯ ডিসেম্বর পুলিশ নির্যাতিতদের বাড়িতে গিয়ে থানায় মামলা করতে পরামর্শ দেয়। ওই রাতেই ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এই ঘটনার বিচার দাবীতে উত্তাল হয়ে উঠে আদিবাসীদের বিভিন্ন সংগঠন।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!