হিলিতে দিনের বেলায় ঝড়ছে কুয়াশা দেখা মিলছেনা সুর্যের আলো

হিলি প্রতিনিধি।।

দেশের সবচেয়ে উত্তরের জেলা দিনাজপুরের হিলিতে খানিকটা আগে ভাগেই শীত পড়তে শুরু করেছে।সেই সাথে দিনের বেলাতেও ঝড়ছে ঘন কুয়াশা। ঘনকুয়াশার কারনে সড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলছে অপরদিকে শীতে কাজে যেতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষজন আক্রান্ত হচ্ছেন শীতজনিত নানা রোগে।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে হিলির পুরো এলাকা, বৃষ্টির মতো আকাশ থেকে ঝড়তে থাকে কুয়াশা। সেই সাথে বাড়তে শুরু করে শীতের তীব্রতা সকাল থেকে শুরু করে বেলা ১১টা পর্যন্ত আকাশ থেকে অঝোড়ে কুয়াশা ঝড়ছিল দেখা মেলেনি সুর্যের। অবশ্য এর পরে সুর্যের দেখা মেলায় তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে থাকে। তবে বিকেলের পর থেকে আবারো তাপমাত্রা কমতে থাকে।

পঞ্চার্শোদ্ধ আমির হোসেন বলেন, আজকে প্রচন্ড শীত, শীতের কারনে বাড়ি থেকে বাহির হতে পারছিনা সকাল ১০টা পেরিয়ে গেছে তারপরেও শীত কমছেনা। সেই সাথে ঘনকুয়াশা যার কারনে কাজেও যেতে পারছিনা।

পথচারী মেহেদি হাসান বলেন, আজকে খুবই অবস্থা থারাপ শীতের মাত্রা মনে হয় সর্বোচ্চ বেশী সেই সাথে এত পরিমান কুয়াশা পড়ছে যা বলার মতো না ২/৩ফিট সামনে কি আছে সেটি দেখা যাচ্ছেনা।শীতের কারনে আমরাই হাটতে পারছিনা যারা বয়স্ক ও শিশুরা আছেন তারা বেশী সমস্যায় পড়েছেন। তারা শীতের কারনে আক্রান্ত হচ্ছেন জ্বর শর্দী কাশিসহ শীতজনিত নানা রোগে।

ট্রাকচালক সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমরা ঢাকা থেকে হিলি স্থলবন্দরে পাথর নিতে এসেছি যেখানে আমাদের হিলিতে পৌছানোর কথা ছিল সকালে সেখানে পৌছতে ৯টা বেজে গেছে। এর একমাত্র কারন হলো সকাল থেকে বৃষ্টির মতো কুয়াশা পড়া শুরু হয়েছে সামনে কোন কিছুই দেখা যাচ্ছেনা।

ঘন কুয়াশার কারনে হেডলাইট জ্বালিয়ে কোনরকমে খুব ধীরে ধীরে দেখে শুনে ট্রাক চালাতে হয়েছে যার কারনেই আসতে দেরী হয়েছে। এর ফলে সময়মতো গন্তব্যস্থলে পৌছানো সম্ভব হচ্ছেনা। এছাড়া এই কুয়াশার কারনে দুর্ঘটনার আশংকা তো রয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর দিনাজপুরের ইনচার্জ তোফাজ্জল হোসেন বলেন, বায়ুমন্ডলের উপরিভাগে জলীয় বাষ্পের পরিমানটা বেড়ে গেছে যার কারনে কুয়াশার পরিমানটা বেশী আর সুর্যের আলো স্বাভাবিকের তুলনায় ২/৩ঘন্টা পরে পাওয়া যাচ্ছে।

আর আজকে দিনাজপুর অঞ্চলের তাপমাত্র ১৫ দশমিক ১ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা যা দেশের মধ্যে সর্বনিন্ম তাপমাত্রা। বাড়তি কুয়াশার পরিমান আরো ১দিন থাকবে এর পরে মাত্রা কমে আসবে তবে শীতের মাত্রা ধীরে ধীরে আরো বাড়বে।

আয়েশা আক্তার/অননিউজ24

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!