হিলিতে পেয়াজের দাম আরেকদফা কমে ২৩ টাকা খুশি ক্রেতা-বিক্রেতা

হিলি প্রতিনিধি।।

৫৪

চাহীদার তুলনায় পেয়াজের বাড়তি আমদানি অব্যাহত থাকায় মাত্র একদিনের ব্যবধানে আবারো দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে পাইকারিতে (ট্রাকসেল) পেয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ৩টাকা করে।

একদিন আগেও বন্দরে ইন্দোর জাতের পেয়াজ প্রকারভেদে ২৬ থেকে ২৮টাকা বিক্রি হলেও বর্তমানে তা কমে ২৩টাকা থেকে ২৫টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া নগর জাতের পেয়াজ ৩২টাকা থেকে ৩৩টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা কমে ৩০টাকা থেকে ৩১টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। পেয়াজের এমন দাম কমায় খুশি বন্দরে পেয়াজ কিনতে আসা পাইকারগনসহ নিন্ম আয়ের মানুষজন।

হিলি স্থলবন্দরে পেয়াজ কিনতে আসা পাইকার রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা হিলি স্থলবন্দর থেকে পেয়াজ ক্রয় করে ঢাকা চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন মোকামগুলোতে সরবরাহ করে থাকি। কিন্তু বন্দর দিয়ে পেয়াজের আমদানি কমের কারনে দাম বেড়ে যাওয়ায় আমাদের পেয়াজ ক্রয় করতে সমস্যা হচ্ছিল এমনকি পেয়াজ কিনতে ভয় হচ্ছিল।

কিন্তু গতসপ্তাহ থেকেই বন্দর দিয়ে পেয়াজের আমদানি বাড়ার সাথে সাথে পেয়াজের দাম কমেছে যে পেয়াজ ৪০টাকায় উঠে গিয়েছিল সেই পেয়াজ এখন ২৩টাকায় নেমে গিয়েছে এতে করে আমাদের পুর্বের তুলনায় পুজি কম লাগার কারনে পেয়াজ কিনতে যেমন সুবিধা হয়েছে তেমনি মোকামগুলোতে ক্রেতারা ক্রেতারা কম দামে পেয়াজ কিনতে পারছেন।

হিলি স্থলবন্দরের পেয়াজ ব্যবসায়ী মোজাম হোসেন বলেন, ভারতের পেয়াজের মোকামগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমানে পেয়াজ লোডিং হওয়ায় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেয়াজের আমদানি আগের তুলনায় বেড়েছে।একইভাবে দেশের সবগুলো বন্দর দিয়ে পর্যাপ্ত পরিমানে পেয়াজ আমদানি হচ্ছে। এর ফলে পুর্বে কালীপুজার কারনে ভারতের মোকামে পেয়াজের লোডিং ৪দিন বন্ধ থাকায় বন্দর দিয়ে পেয়াজ আমদানি কমের কারনে দেশের বাজারে পেয়াজের সরবরাহ কমায় দাম যে উদ্ধমুখি হয়েছিল সেই অবস্থা থেকে বর্তমানে পেয়াজের দাম একেবারে নিন্মমুখি অবস্থায় রয়েছে।

এছাড়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মোকামগুলোতে থাকা পুরানো দেশীয় পেয়াজগুলো বাজারে ছাড়ার কারনে এর সরবরাহ বেড়েছে যার কারনে দেশীয় পেয়াজের দাম যেটি বেড়েছিল সেটি আবারো কমেছে। এছাড়াও দেশীয় নতুন জাতের পাতা পেয়াজ উঠতে শুরু করায় এর সরবরাহ যেমন বেড়েছে তেমনি দাম কম থাকায় দেশের বাজারে আমদানিকৃত ভারতীয় পেয়াজের চাহীদা আগের তুলনায় কমার কারনে পেয়াজের দামের উপর প্রভাব পড়ছে।

আর পেয়াজ কাচামাল এটি নিয়ে সিন্ডিকেট করার কিছু নেই আমদানি বাড়লে পেয়াজের দাম কমবে আর আমদানি কমলে পেয়াজের দাম বাড়বে এটাই নিয়ম। কয়েকদিন আগে যে পেয়াজ ৪০টাকায় উঠে গিয়েছিল আমদানি বাড়ার কারনে সেই পেয়াজ এখন ২৩টাকায় নেমেছে।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে গত সপ্তাহ থেকেই পেয়াজের বাড়তি আমদানি অব্যাহত রয়েছে।তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল রবিবার বন্দর দিয়ে ২৭টি ট্রাকে ৭৮১টন পেয়াজ আমদানি হয়েছে। আজো বন্দর দিয়ে পেয়াজ আমদানি অব্যাহত রয়েছে।পেয়াজ কাচামাল হওয়ায় এটি দ্রুত খালাসের জন্য বন্দর কতৃপক্ষ সবধরনের ব্যবস্থা নিয়ে রেখেছে।

আয়েশা আক্তার/অননিউজ24

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!