১৪ বছর পর বরুড়ার আলম হত্যার রায়; ৩ আসামীর যাবজ্জীবন

বরুড়া প্রতিনিধি।।

১৭৯

হত্যাকান্ডের ১৪ বছর পর কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা আলম হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। ২০০৮ সালের এই মামলায় ৮ আসামীর তিনজনের যাবজ্জীবন ও ৫ জনকে খালাস দেয়া হয়। সোমবার (২৭ জুন) কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ আদালত অতিরিক্ত-২ এর বিচারক নাছরিন জাহান এ রায় দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী আবু কালাম ও আয়েশা ছিদ্দিকা ভূঁইয়া।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন— মামলার ১ নম্বর আসামি ফজলুল হককে যাবজ্জীবন, ৩ নম্বর আসামি আবিদ আলীকে যাবজ্জীবন ও অতিরিক্ত এক বছরের কারাদণ্ড, ৪ নম্বর আসামি আবুল খায়েরকে যাবজ্জীবন ও অতিরিক্ত ৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, ২০০৮ সালের ২০ মার্চ কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার দক্ষিণ শিলমু্ড়ি ইউনিয়নের শিয়ালোড়া গ্রামের আবদুল খালেকের ছেলে মো. আলম ও তার বড় ভাই আলী নেওয়াজকে জায়গা জমির বিরোধে একই গ্রামের ফজলুল হক, আবু তাহের, আবিদ আলী, আবুল খায়ের, মো. জসীম, সোহেল মিয়া, সুমন, জয়নব বিবি ও মো. সুমনসহ কয়েকজন মারধর করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় আলম ও আলীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হসপিটালে ভর্তি করা হলে আলমকে উন্নত চিকিৎসা জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হসপিটালে নেয়া হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই দিন পর ২২ মার্চ সকালবেলা আলম মারা যায়। তারপর ঐ দিন সন্ধ্যায় নিহতের মা মাছুমা বেগম বাদী হয়ে বরুড়া থানায় দায়ের করেন।

মামলার বাদী মাছুমা বেগম বলেন, আমি মামলার রায়ে সন্তুষ্ট নই। আমরা সবার ফাঁসি চাই। আমি উচ্চ আদালতে যাব সবার ফাঁসির রায়ের জন্য।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!