২৫তম বিবাহবার্ষিকী! শচীনের কাণ্ডে চমকে গেল বিশ্ব

73

অনলাইন ডেস্ক।। নিজের ইনস্টাগ্রামে হেয়ার স্টাইলিস্ট হওয়ার ভিডিও শেয়ারও করেন মাস্টার ব্লাস্টার। ব্যাট নিয়ে দুরন্ত স্কিলে আড়াই দশক গোটা বিশ্ব মাতিয়ে রাখার পর, এবার অন্য ভুমিকাতেও সফল।ক্রিকেট কেরিয়ারে একাধিক রেকর্ড গড়েছেন। সেই মাইলফলক এখনো অধরা বাকিদের কাছে। ব্যাট হাতে যেভাবে বিশ্ব ক্রিকেটকে অবাক করেছেন। সেভাবে বাইশ গজের বাইরেও প্রতিনিয়ত চমকে দিচ্ছেন সকলকে। ব্যাটের পরিবর্তে কখনো রান্নার কড়া-খুন্তি হাতে, কখনো আবার চুল কাটার কাঁচি দিয়ে।

নিজের ২৫ তম বিবাহবার্ষিকীতে মাস্টার ব্লাস্টার এবার নিজেই পরিবারের জন্য ম্যাংগো-কুলফি বানিয়ে দিলেন। পরিবারের সঙ্গে মাস্টারের এই কীর্তিতে হতচকিত গোটা বিশ্বই।নিজের ম্যাংগো-কুলফি বানানোর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে শচীন লিখলেন, “আমাদের বিবাহ বার্ষিকীতে ম্যাংগো-সারপ্রাইজ। ২৫তম বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে পরিবারের সকলকে সারপ্রাইজ দিলাম ম্যাংগো-কুলফি বানিয়ে।”

লিটল মাস্টারের সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার পরেই তা ভাইরাল। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিওটি ঝড় তুলে দিয়েছে। সমর্থকরা কিংবদন্তিকে নয়া ভূমিকায় দেখতে পেয়ে বেজায় খুশি। সবাই বলছেন, ব্যাট হাতে হোক বা কাঁচি হাতে- যে কাজই শচীন করুন না কেন, নিজের সেরাটাই দেন। সোমবারই শচীন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে সকলকে ঈদ উল ফিতর এর শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন।

লকডাউনে গোটা বিশ্ব স্তব্ধ। বুন্দেশলিগা সহ বেশ কিছু দেশে ফুটবল চালু হয়ে গেলেও ক্রিকেট মাঠে বল গড়ায়নি। লকডাউনেই ক্রিকেট তারকারা সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সমর্থকদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন।যাইহোক, কিছুদিন আগেই শচীনের আরো একটি ছবি ভাইরাল হয়, যেখানে মাস্টার ব্লাস্টারকে দেখা গিয়েছে কাঁচি হাতে পুত্র অর্জুনের চুল কেটে দিতে।

তৃতীয় দফায় লকডাউন শেষের পরেই আরো একদফা লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে। লকডাউনের কড়াকড়ির নিষেধাজ্ঞা কিছুটা শিথিল করা হলেও এখনও সেলুন, কিংবা পার্লার খোলার অনুমতি মেলেনি। তারপরেই শচীন অবতীর্ণ সম্পূর্ণ অন্য অবতারে হাজির হয়েছিলেন। পুত্র অর্জুনের জন্য।

নিজের ইনস্টাগ্রামে হেয়ার স্টাইলিস্ট হওয়ার ভিডিও শেয়ারও করেন মাস্টার ব্লাস্টার। ব্যাট নিয়ে দুরন্ত স্কিলে আড়াই দশক গোটা বিশ্ব মাতিয়ে রাখার পর, এবার ছুরি, কাঁচি হাতেও নিজের দক্ষতা প্রমান করেছিলেন তিনি।পরে ক্যাপশনে লেখেন, “বাবা হিসাবে সব কিছু করতে হয়। বাচ্চাদের সঙ্গে খেলা, জিম করার পাশাপাশি কখনো কখনো চুলও কেটে দিতে হয়। হেয়ার স্টাইল যাই হোক না কেন, অর্জুন তুমি সবসময়ই হ্যান্ডসাম থাকবে।”

আরো পড়ুনঃ
error: Content is protected !!