ওটিতে ঢুকে নবজাতককে কামড়ে খেল কুকুর!

অনলাইন ডেক্স।।

57
হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) প্রবেশ করে এক নবজাতক শিশুকে কামড়ে খেয়ে ফেলেছে রাস্তার এক কুকুর! এমনই রোমহর্ষক ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের ফররুখাবাদের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। শিশুটি ছিল বেসরকারি ফিন্যান্স ফার্মে কর্মরত রবি কুমার ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী কাঞ্চনের সদ্য প্রসূত সন্তান।
গত ১৩ জানুয়ারি (সোমবার) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আবাস বিকা কলোনির আকাশ গঙ্গা হাসপাতালে ঘটে ওই মর্মান্তিক ঘটনা। ডেলিভারির ব্যথা ওঠায় কাঞ্চনকে নিয়ে হাসপাতালে যান রবি।
রবি কুমার জানান, ‘প্রথমে হাসপাতালের নার্সিং স্টাফরা জানিয়েছে নরমাল ডেলিভারি হবে। তবে কয়েক মুহূর্ত পরই ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে তারা জানান, সিজার করতে হবে। সেইজন্য কাঞ্চনকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। এক ঘণ্টা পর তারা জানান অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। তারা কাঞ্চনকে ওয়ার্ডে দিয়ে দিলেও বাচ্চাটি অপারেশন থিয়েটারেই রেখে রবিকে বাইরে অপেক্ষা করতে বলেন।’
প্রথমবার বাবা হওয়া রবি কাঁদতে কাঁদতে আরও বলেন, ‘কয়েক মিনিট পর হাসপাতালের এক কর্মী চিত্‍‌কার করে বলতে থাকে, অপারেশন থিয়েটারে কুকুর ঢুকেছে। বিপদ আঁচ করে আমি ওটির দিকে ছুটে গিয়ে দেখি আমার সন্তান রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে রয়েছে। বাচ্চাটার বুকে ও বাঁ চোখে কুকুরের কামড়ের দাগ ছিল। ও স্থির হয়ে পড়ে ছিল। নড়াচড়া করছিল না। কুকুরটি আবার অপারেশন থিয়েটারে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করলে আমি চিত্‍‌কার করে উঠি।’
এদিকে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ আনায় তারা টাকা দিয়ে রবিকে চুপ করিয়ে দিতে চেয়েছিল বলে অভিযোগ। তারা দাবি করে, বাচ্চাটি মৃত অবস্থাতেই ছিল। আর কুকুরটি ভুলবশত ওটিতে ঢুকে পড়েছিল।
জেলা প্রশাসক মহেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, ‘আমরা তদন্ত করেছি। হাসপাতালের গাফিলতির জন্যই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে কমিটি।’ হাসপাতালের মালিক বিজয় প্যাটেল ও তার কর্মীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ। আপাতত হাসপাতালটি বন্ধ রাখা হয়েছে। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া
আরো পড়ুনঃ