ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু: ৪ শিক্ষার্থীর জানাজা এক সাথে সম্পন্ন

অনলাইন ডেক্স।।

72
কাল ছিল তাদের দুরন্তপনা। আজ চার জনেরই একসাথে জানাযা নামাজ। বন্ধুবান্ধব আত্মীয় স্বজনদের কেউ কেউ স্মৃতিচারণ করছেন তাদের নিয়ে। কারো বিলাপ ধরে কান্না, কারো নিরবে ঝরে পড়ছে অশ্রু। কেউ যেন মনকে বুঝাতে পারছে না। এলাকায় অতীতে কেউ কখনো একসাথে চারজনের জানাযার নামাজ পড়েনি? ঈমামও পড়াইনি।
বুধবার (২৯ জানুয়ারি) গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের জয়নগর মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে হাজারো এলাকাবাসী আবু রায়হান খান, আল আমিন খন্দকার, ইয়াসিন শরীফ, সোহান তালুকদারের এক সাথে জানাযার নামাজ পড়ে এক মর্ম্মাহত ঘটনার এমন সাক্ষী হয়ে রইল। সকাল ১০টায় একসাথে তাদের জানাযা নামাজ শেষে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। তাদের চির বিদায় দিতে হবে তা কখনো জন্মদাতা মা-বাবা কল্পনাও করেনি। আজ পিতার কাঁধে ও স্বজনদের কাঁধে করে চোখের জলে বুক ফাটা আর্তনাধের মধ্য দিয়ে কবরে শুইয়ে দিয়ে কেঁদে কেঁদে বাড়ী ফিরলেন।কে থামাবে কার কান্না। বাবা,মা,ভাই,বোন ও স্বজনদের আহাজারীতে এলাকার আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। চলছে শোকের মাতম।
উল্লেখ্য, গতকাল মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার জয়নগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের চার শিক্ষার্থী মোটরসাইকেলে জয়নগর থেকে ব্যাসপুর যাওয়ার সময়ে বিশ্বনাথপুর রেল ক্রসিং অতিক্রম করার সময় ট্রেনের ধাক্কায় আহত হয়ে মৃত্যুবরণ করে।
নিহতরা হলো- উপজেলার জয়নগর উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ও নাওরা দোলা গ্রামের মো. ফরিদ শরীফের ছেলে মো. ইয়াসিন শরীফ (১৬), দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী হিরোন্যকান্দি গ্রামের আশরাফ আলী খানের ছেলে মো. রায়হান খান (১৫), দশম শ্রেণীর ছাত্র হিরোন্যকান্দি গ্রামের মো. আহাদ তালুকদারের ছেলে মো. সোহান তালুকদার (১৫), দশম শ্রেণীর ছাত্র একই গ্রামের মো. লাবু খন্দকারের ছেলে আল আমিন খন্দকার (১৫)।
আরো পড়ুনঃ