ব্রাহ্মণপাড়ায় চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ

ইমন মিয়া।।

30
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার চান্দলা গজারিয়া একতা কাবের উদ্যোগে চিত্রঙ্কণ ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার চান্দলা গজারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।
জানা গেছে, মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলে গত ২১ শে ফেব্রুয়ারি চান্দলা গজারিয়া একতা কাবের উদ্যোগে ওই ইউনিয়নের ৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে চিত্রঙ্কণ ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। যাচাই বাছাই শেষে ১৬ মার্চ সোমবার গজারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এক সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভার মধ্যদিয়ে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পুরস্কার বিতরণের কার্যক্রম সম্পন্ন করেন।
অনুষ্ঠানে গজারিয়া একতা কাবের উপদেষ্টা মোঃ হাফিজুর রহমান সরকার কাউছারে সভাপতিত্বে ও কাবের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহান্মদ শরিফ খাঁন আকাশ সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা প্রেস কাবের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল নয়ন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা প্রেস কাবের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও চান্দলা মডেল হাই স্কুলের প্রধান শিক অপু খান চৌধুরী, গজারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিকিা শিরীন আক্তার, সিউলি বেগম, ব্রাহ্মণপাড়া প্রবাসী আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মোঃ খোকন মিয়া, দপ্তর সম্পাদক বাবু মিয়া।
এসময় ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি পারভেজ খান, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল হাসান শুভ, মাঈনউদ্দিন, কাবের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জয় দাস, সদস্য বিশাল, রবিন, সাব্বির, ইমন, সাফায়েত সহ বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক, শিক্ষিকা, অভিভাবক ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ এবং শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ইসমাইল নয়ন বলেন, আজকের শিশুরাই আগামীর আলোর মশাল।
তাদের এখন থেকেই যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। শিশুদের ব্যক্তিত্বের গঠন আমাদের সমাজের জন্য অত্যন্ত গুরত্বপুর্ণ। কারণ, আমরা যে শিশুকে আজ নৈতিকতা ও মূল্যবোধ শেখাব, কাল তাদেরই আমরা আলোকিত মানুষ হিসেবে আমাদের সমাজে পাব। ফলে, একটি শিশুর প্রাথমিক জীবনে তার মধ্যে মানবীয় গুণাবলি তৈরি করা এবং তার ব্যক্তিত্বকে সুন্দর করে গড়ে তোলা জরুরি। তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে শিক্ষকদের পাশাপাশি অভিভাবকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।
পরে অতিথিরা চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার বিজয়ী শিার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।
আরো পড়ুনঃ