অটোরিকশার ভাড়া নিয়ে তুলকালাম কান্ড!!

অনলাইন ডেস্ক।।

6
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে সিএনজিচালিত অটোরিকশার ভাড়া নিয়ে দু’দল গ্রামবাসীর মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে ৪০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার রাতে এবং মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার চর ইসলামপুর বাজারের কাছে এই ঘটনা ঘটে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, সোমবার (১৬ মার্চ) সন্ধ্যায় চর ইসলামপুর বাজারের মুদি দোকানি নবীর মিয়া অটোরিকশা দিয়ে তার দোকানের জন্য উপজেলার রামপুর বাজার থেকে তেল নিয়ে আসেন। তেলের ড্রামের কারণে অটোরিকশার দুই সিটে যাত্রী তুলতে না পারায় চালক শরীফ মিয়া দুই সিটের জন্য ৫০ টাকা ভাড়া দাবি করেন। এনিয়ে শরীফের সঙ্গে নবীর মিয়ার বাকবিতণ্ডা হয়। এসময় নবীর মিয়ার ছেলে ইকবাল মিয়া অটোরিকশা শরীফের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাতেই শরীফ ও নবীর লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। প্রায় দেড় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ৪০ জন আহত হয়। সংঘর্ষ চলাকালে বেশ কয়েকটি বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ও লুটপাট হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
আহত মুক্তার মিয়া ও আনিসুর রহমান জানান, সোমবার রাতে শরীফের সঙ্গে নবীর মিয়ার বাকবিতণ্ডা ও হাতাহাতি হয়। এ ঘটনার জেরে মঙ্গলবার সকালে নবীর মিয়ার লোকজন গাজী মেম্বারের নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে শরীফের লোকদের ওপর হামলা করে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. নাজমুল হক বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় আহত ৩০ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাদের সবারই মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে। তবে তারা সবাই শঙ্কামুক্ত।
এ ব্যাপারে বিজয়নগর থানার ওসি আতিকুর রহমান বলেন, এলাকার পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক আছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় কোনও পক্ষ এখনও মামলা করেনি।
আরো পড়ুনঃ