এশিয়া রেডিও ক্লাব (সার্ক) বাংলাদেশের রজতজয়ন্তী উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

৮২

পথচলার ২৫ বছর পূর্ণ করেছে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত বেতার শ্রোতা সংগঠন সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব (সার্ক) বাংলাদেশ। ক্লাবের রজতজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে দিনব্যাপী র‍্যালী, জুম কনফারেন্স, আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত শনিবার উত্তরা চেম্বার বিল্ডিং-এ অত্যন্ত আনন্দঘন পরিবেশে রজতজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব (সার্ক) বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও রেডিও এক্টিভিস্ট দিদারুল ইকবালের পরিচালনায় এবং ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা ড. মির শাহ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব ও বাংলাদেশ বেতারের সাবেক মহাপরিচালক কাজী আখতার উদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ বেতারেরর অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অনুষ্ঠান বিভাগ) নসরুল্লাহ মো. ইরফান, উপ-মহাপরিচালক মো. ছালাউদ্দিন, পরিচালক সায়েদ মোস্তফা কামাল, পরিচালক (বাণিজ্যিক কার্যক্রম) মো. আব্দুল হক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক ড. আব্দুল মান্নান । সকাল সাড়ে ১০টায় র‍্যালীর মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। এরপর শুরু হয় জুম কনফারেন্স। এতে ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম, ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ সহ বেশ কয়েকটি দেশের বেতার কর্মকর্তা ও শ্রোতা ডিএক্সারবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাজী আখতার উদ্দিন আহমেদ বলেন, একটি শ্রোতাক্লাবের জন্য “২৫ বছর” বিশাল একটি মাইল ফলক। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন রেডিও স্টেশনের সাথে সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব যেভাবে সক্রীয় যোগাযোগ রেখে চলেছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। ক্লাবের উদ্যোগে বিভিন্ন বেতার সম্পর্কে প্রচারণা ও সামাজিক কার্যক্রম পালন এই শ্রোতাক্লাবকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে। ফলে এই শ্রোতাক্লাবের সুনাম আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি আরো বলেন, শ্রোতারা হচ্ছে বেতারের হ্নদয়। শ্রোতারা যত ভালো অনুষ্ঠান শুনবে, ভালো তথ্য পাবে তারা তত বেশি সমৃদ্ধ হবে এবং বেতারের প্রতি আকৃষ্ট হবে। এতে বেতার লাভবান হবে। যেখানে শ্রোতাক্লাব আছে সেখানে অনুষ্ঠানের মান ভালো হয়। কারণ শ্রোতাক্লাবের মাধ্যমে বেশি সংখ্যক শ্রোতা অনুষ্ঠানের মূল্যায়ন করে চিঠি-পত্র, ই-মেইল, ম্যাসেজসহ বিভিন্ন মাধ্যমে মতামত পাঠায়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নসরুল্লাহ মো. ইরফান, বেতার ও শ্রোতাক্লাবের উন্নয়নে যুগোপযোগী গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাবের নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি শ্রোতাক্লাবের অপার সম্ভাবনাকে যথাযথভাবে কাজে লাগানোর উপরও গুরুত্বারোপ করেন।

ক্লাব চেয়ারম্যানের বক্তব্যে দিদারুল ইকবাল বলেন, শ্রোতাক্লাবের এ দীর্ঘ যাত্রায় অনেক প্রতিকূল পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে। কিন্তু আমরা কখনো দমে যাইনি। সকল প্রতিকূলতা ও বাঁধা-বিপত্তি জয় করে কোনো চাপের কাছে নতি স্বীকার না করে সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব (সার্ক) বাংলাদেশ তার অদম্য সাহস ও দৃঢ়তার সাথে সবকিছু মোকাবিলা করেছে। আমরা চেষ্টা করি বিভিন্ন বেতার অনুষ্ঠানের মান নিয়ে ভালো-মন্দের সার্বিক বিষয়গুলো সর্বোচ্চ তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে আনা এবং শ্রোতাক্লাবের সাংগঠনিক কর্মসূচি পালনের স্বচিত্র বিবরণ তুলে ধরা। আমাদের ক্লাব যেমন বেতারে প্রচারিত অনুষ্ঠানের ভুল-ক্রটি কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরে, তেমনি বেতারের সব ধরনের ভালো অনুষ্ঠানেরও সমানভাবে প্রশংসা করে থাকে। বেতারের সংশ্লিষ্ট সবার কাছে আমরা শ্রোতাবান্ধব সহযোগিতা কামনা করি।

সভাপতির বক্তব্যে মির শাহ আলম বলেন, শ্রোতাবান্ধব আদর্শ বুকে ধারণ করে অনুষ্ঠান নির্মাণসহ শ্রোতাদের সেবা প্রদান করতে হবে। বেতার কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে অনুষ্ঠান পরিবেশনের মাধ্যমে শ্রোতাদের উজ্জীবিত করতে হবে। বেতারের সাথে সম্পৃক্ত শ্রোতা ও শ্রোতা সংগঠনগুলোকে বিভিন্ন ভাবে যথাযথ মূল্যায়ন ও পুরস্কার প্রদানের অনুরোধ রইলো।

বিশেষ অতিথি ছাড়াও অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ বেতারের মূখ্য উপস্থাপক ও রেডিও এ্যানাউন্সার্স ক্লাব (র‍্যাংক) এর সভাপতি মাহবুব

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!